বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘লিঙ্গবৈষম্যমূলক’ ঠাট্টা! রণদীপ হুডাকে সরানো হল UN treaty-র ambassador পদ থেকে
রণদীপ হুডা।
রণদীপ হুডা।

‘লিঙ্গবৈষম্যমূলক’ ঠাট্টা! রণদীপ হুডাকে সরানো হল UN treaty-র ambassador পদ থেকে

  • বর্ণবিদ্বেষী, অপমানজনক লিঙ্গ বৈষম্যমূলক মন্তব্য করার জন্য রণদীপ হুডাকে গ্রেফতার করার দাবি উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

বৃহস্পতিবার থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল Arrest Randeep Hooda হ্যাশট্যাগ। আসলে হঠাৎই ভাইরাল হয়েছে অভিনেতার নয় বছরের পুরনো একটি ভিডিয়ো। সেখানেই বলিউড অভিনেতাকে বর্ণবিদ্বেষী, অপমানজনক লিঙ্গ বৈষম্যমূলক, অশ্লীল ঠাট্টা করতে দেখা গিয়েছে উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মায়বতীকে নিয়ে। আর তারপরেই অভিনেতার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন নেটনাগরিকরা। আর যার ফলে রাষ্ট্র সংঘের পরিযায়ী বন্য প্রাণীদের সংরক্ষণের জন্য প্রচারকের পদ থেকে সরানো হল। 

ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে একটি আলোচনা সভায় রণদীপ হুডা বলছেন ‘এবার আমি একটি অশ্লীল ঠাট্টা করব।’ তারপরেই তিনি নাম নেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং বিএসপি দলের নেত্রী মায়াবতীর। তারপর তিনি যে কথাগুলো বলেন তা অত্যন্ত কুরুচিকর বলেই দাবি করা হয়েছে। দেখা যায়, তাঁর  ঠাট্টা শেষ হতেই শ্রোতা ও দর্শকরা হেসে ওঠেন তাঁর কথায়। তারপরেই রণদীপের বিপক্ষে চলে গিয়েছেন সকলে। দেখে নিন সেই পুরনো ভিডিয়ো।

হ্যাশট্যাগ ‘অ্যারেস্ট রণদীপ হুডা’ ভাইরাল হওয়ার পরই এই বিষয়ের উপর বেশ কিছু মিম সোশ্যাল ওয়ালে ভাইরাল হয়। সব জায়গাতেই কাঠগড়ায় রণদীপ। দেখে নিন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া সেসব মিম।

যদিও কোন পরিপ্রেক্ষিতে রণদীপ এই কথা বলেছেন সে সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। আবার ভিডিওটি এডিটেড হতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে। রণদীপের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত এবিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। যদিও নেটনাগরিকদের মন্তব্য, একজন বলিউড অভিনেতা হয়ে কীভাবে প্রকাশ্যে এরকম ‘খারাপ’ মন্তব্য করতে পারেন তিনি!

বন্ধ করুন