বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ওদের জ্বালায় থাকতে পারছি না,তাড়িয়ে দিচ্ছে, গ্রাম ছাড়তে চান ২৫টি হিন্দু পরিবার
গ্রাম ছেড়ে চলে যেতে চান ২৫টি পরিবার। প্রতীকী ছবি (Photo by Uday Deoleklar/HT Photo) (HT PHOTO)
গ্রাম ছেড়ে চলে যেতে চান ২৫টি পরিবার। প্রতীকী ছবি (Photo by Uday Deoleklar/HT Photo) (HT PHOTO)

ওদের জ্বালায় থাকতে পারছি না,তাড়িয়ে দিচ্ছে, গ্রাম ছাড়তে চান ২৫টি হিন্দু পরিবার

  • ওই গ্রামে প্রায় ৬০ শতাংশ মুসলিম ও ৪০ শতাংশ হিন্দু পরিবারের বাস।

 প্রতিবেশীদের সঙ্গে ঝামেলা। আর তার জেরে অন্তত ২৫টি হিন্দু পরিবারকে এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য শাসানি দেওয়ার অভিযোগ অপর একটি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে উঠেছে। এমনকী পরিস্থিতি এমন জায়গায় গিয়েছে, ওই বাড়ির লোকজন বাড়ির দেওয়ালে লিখেছেন, এই বাড়িগুলো বিক্রি আছে। কারণ, বার বার নানা হুমকির জেরে গ্রাম ছেড়ে চলে যেতে চাইছেন তাঁরা। ভূপালের রতলাম জেলার সুরানা গ্রামের ঘটনা। ওই গ্রামে প্রায় ৬০ শতাংশ মুসলিম ও ৪০ শতাংশ হিন্দু পরিবারের বাস। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, স্থানীয় মুকেশ জাঠ হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের সংযোজক। তাঁর সঙ্গে ময়ুর খান নামে অপর এক বাসিন্দার বিরোধ। দুপক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন। মুকেশের দাবি,ওরা আপত্তিকর মিউজিক বাজাচ্ছে। মিছিল বের করছে। মহিলারাও সুরক্ষিত নন। সবসময় মানসিকভাবে চাপে রাখছে। পুলিশকে বলতে যাচ্ছি কোনও পদক্ষেপই নিচ্ছে না। ১০০টা লোক নিয়ে ময়ুর খান মেরে গেল। গ্রাম ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য শাসাচ্ছে। অপর এক গ্রামবাসী ওমপ্রকাশ প্যাটেল বলেন, ওরা বাইক নিয়ে ভয় দেখাচ্ছে। বাড়ির সামনে ময়লা ফেলে যাচ্ছে। বাচ্চাদের ভয় দেখাচ্ছে। জেলা প্রশাসনের কাছে দাবি, অন্য কোথাও জমি দেখে দিন। চলে যাব। 

এদিকে ময়ূর খানের পালটা দাবি, সবেতেই মুকেশ জাঠরা সাম্প্রদায়িক রঙ চাপানোর চেষ্টা করছেন। ১৬ জানুয়ারি আমাকে মারধর করে, আমার বিরুদ্ধেই এফআইআর করল। এদিকে হোম মিনিস্টার নরোত্তম মিশ্র জানিয়েছেন, বিষয়টি গুরুতর। শান্তি বজায় রাখতে হবে।তবে কারোর ভয় পাওয়ার কারণ নেই। এদিকে জেলা প্রশাসন ইতিমধ্যে গ্রামবাসীদের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি মিটমাট করার চেষ্টা করছে। 

 

বন্ধ করুন