বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ২৮ বছর ধরে কাকার হাতে ধর্ষণের শিকার, পরিবারের আর কারা কাঠগড়ায়? পুলিশের দ্বারস্থ মহিলা
ধর্ষণের ঘটনার অভিযোগ উত্তরপ্রদেশে।

২৮ বছর ধরে কাকার হাতে ধর্ষণের শিকার, পরিবারের আর কারা কাঠগড়ায়? পুলিশের দ্বারস্থ মহিলা

  • মহিলা তাঁর অভিযোগপত্রে জানিয়েছেন, ৭ বছর বয়স থেকে তাঁর কাকা তাঁকে ধর্ষণ করে আসছেন। বিষয়টি নিয়ে তাঁর মাকে কিছু বললেই তিনি পাল্টা মেয়েকে ওষুধ খাইয়ে দিতেন। আর মুখ বন্ধ রাখতে বলতেন। এরপর ওই মহিলার বিয়ে হয়। তাঁর অভিযোগ, বিয়ের পর তাঁর সৎভাই শ্বশুরবাড়ি থেকে তাঁকে এনে তাঁর ওপর যৌন নির্যাতন করেন।

ঘটনা উত্তরপ্রদেশের সাসনি গেট এলাকার। সেখানে এক ৩৬ বছর বয়সী মহিলা পুলিশের দ্বারস্থ হয়ে গত ২৮ বছর ধরে তাঁর ওপর চলা ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে অভিযোগে সরব হন। তাঁর অভিযোগ, ১৯৮৮ সালে তাঁর বাবা একটি পথ দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর, বাড়িতে কর্মরত এক পরিচারককে বিয়ে করেন তাঁর মা। এরপর তাঁর মায়ের সঙ্গে ওই ব্যক্তির বাড়িতে থাকা শুরু করতেই, মহিলার সৎ বাবার ভাই যিনি সম্পর্কে তখন মহিলার কাকা, তিনি যৌন নিপিড়ন শুরু করেন বলে অভিযোগ।

মহিলা তাঁর অভিযোগপত্রে জানিয়েছেন, ৭ বছর বয়স থেকে তাঁর কাকা তাঁকে ধর্ষণ করে আসছেন। বিষয়টি নিয়ে তাঁর মাকে কিছু বললেই তিনি পাল্টা মেয়েকে ওষুধ খাইয়ে দিতেন। আর মুখ বন্ধ রাখতে বলতেন। এরপর ওই মহিলার বিয়ে হয়। তাঁর অভিযোগ, বিয়ের পর তাঁর সৎভাই শ্বশুরবাড়ি থেকে তাঁকে এনে তাঁর ওপর যৌন নির্যাতন করেন। এতদিন ধরে এমন পাশবিক অত্যাচার সহ্যের পর শেষে তিনি পুলিশের দ্বারস্থ হন। এদিকে, এই ঘটনার পর পুলিশের দ্বারস্থ তিনি হতেই তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করে পুলিশ। গোটা অভিযোগের তদন্তে নেমেছে পুলিশ। ‘সব পয়সা বরবাদ’ চিতা-টুইট ঘিরে অখিলেশকে পাল্টা কটাক্ষ বিজেপির, তুঙ্গে তরজা

উল্লেখ্য, কাকা ভাইঝির সম্পর্কের মধুরতার মাঝে এমন একটি ঘটনা ঘিরে রীতিমত হতভম্ব এলাকাবাসী। জানা গিয়েছে, মা ও সৎ বাবা, সৎ কাকা, সৎ ভাইয়ের বিরুদ্ধে গিয়ে ওই মহিলা মামলা দায়ের করেছে। আপাতত গোটা মামলার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। খুব শিগগিরিই এই মামলা নিয়ে কোনও তথ্য সামনে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন