বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > লোনের নামে ১৬৮ কোটির প্রতারণা, গুয়াহাটির কোম্পানির বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের মামলা
সিবিআই দফতর (ফাইল ছবি)
সিবিআই দফতর (ফাইল ছবি)

লোনের নামে ১৬৮ কোটির প্রতারণা, গুয়াহাটির কোম্পানির বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের মামলা

  • পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা সিবিআইয়ের। তাদের মধ্যে প্রমোটারের পাশাপাশি গুয়াহাটির একটি অটোমোবাইল কোম্পানির ডিরেক্টররা রয়েছেন

বড়সর ব্যাঙ্ক প্রতারণার অভিযোগ অসমের গুয়াহাটিতে। জাল নথি পেশ করে কোটি কোটি টাকা লোন নিয়ে ব্যাঙ্কিং প্রতারণার অভিযোগ। এই ঘটনায় এবার সিবিআইয়ের আতস কাঁচের নীচে অসমের অটোমোবাইল কোম্পানির কর্তা থেকে একাধিক ব্যাঙ্ক আধিকারিক। লোন অনুমোদন করার আগে কেন নথিপত্র যথাযথভাবে যাচাই করা হয়নি সেই অভিযোগও উঠছে। এব্যাপারে মামলাও করেছে সিবিআই। সিবিআই সূত্রে খবর, আইডিবিআই ব্যাঙ্কের ১৬৮.৬২ কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ। পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা সিবিআইয়ের। তাদের মধ্যে প্রমোটারের পাশাপাশি গুয়াহাটির একটি অটোমোবাইল কোম্পানির ডিরেক্টররা রয়েছেন। সিবিআই সূত্রে খবর, চারজন প্রমোটার, ঘোষ ব্রাদার নামে একটি কোম্পানির ডিরেক্টর, একজন চার্টার্ড অ্য়াকাউন্টান্ট, একজন ব্যাঙ্ক আধিকারিকদের বিরুদ্ধে তদন্তে নেমেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। 

অভিযোগ উঠেছে, টার্ম লোন ও ক্যাশ ক্রেডিটের ব্যবস্থা অনুমোদন করা হয়েছিল অভিযুক্ত কোম্পানির নামে। আইডিবিআই ব্যাঙ্ক থেকে একটি কোম্পানির নামে ৬৪.৬৭ কোটি টাকা মঞ্জুর করা হয়। এক্ষেত্রে জাল নথিপত্র পেশ করা হয়েছিল বলে অভিযোগ। গাড়ি কেনার কথা বলে এই লোন নেওয়া হয়েছিল। এদিকে এর জেরে ব্যাঙ্কের প্রায় ১৬৮.৬২ কোটি টাকার ক্ষতি হয় বলে অভিযোগ। এদিকে এই অভিযোগকে ঘিরে নড়েচড়ে বসে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। সিবিআই সূত্রে খবর, অভিযুক্তদের নাম প্রণব কুমার ঘোষ, প্রতুল কুমার ঘোষ, গীতারানি ঘোষ, প্রবীর কুমার ঘোষ, ঘোষ ব্রাদার্স অটোমোবাইলসের সমস্ত প্রমোটার ও ডিরেক্টর, অরুনাভ চট্টোপাধ্যায় নামে এক চার্টার্ড অ্যাকাউন্টান্ট, নাম না জানা ব্যাঙ্ক আধিকারিকদের বিরুদ্ধে মামলা সিবিআইয়ের।

 

বন্ধ করুন