বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Covaxin সম্পূর্ণ নিরাপদ, স্বীকৃতি দিল আন্তর্জাতিক মেডিকেল জার্নাল
ভারত বায়োটেক-এর কোভ্যাক্সিন-এর প্রথম ডোজ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। ছবি: এএনআই (ANI) (ANI)
ভারত বায়োটেক-এর কোভ্যাক্সিন-এর প্রথম ডোজ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। ছবি: এএনআই (ANI) (ANI)

Covaxin সম্পূর্ণ নিরাপদ, স্বীকৃতি দিল আন্তর্জাতিক মেডিকেল জার্নাল

কোভ্যাক্সিন স্থানান্তর ও সংরক্ষণের ক্ষেত্রে আদর্শ তাপমাত্রাও যাচাই করা হয়। সেই অনুযায়ী ২-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় রাখলেই ভালো থাকবে কোভ্যাক্সিন।

Covaxin সম্পূর্ণ রূপে নিরাপদ। Bharat Biotech-এর করোনা ভ্যাক্সিন নিরাপদ, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে ও এর কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও নেই। আন্তর্জাতিক মেডিকেল জার্নাল ল্যান্সেট-এ প্রকাশিত দ্বিতীয় দফার রিপোর্টে এমনই উল্লেখ করা হয়েছে।

'প্রথম ডোজের ২৮ দিন পর দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার পর BBV152-এর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও কতটা নিরাপদ তাই নিয়ে আমরা অন্তর্বর্তী রিপোর্ট পেশ করতে চলেছি,' সোমবারের রিপোর্টের শুরুতে লেখা হয়েছে।

সেখানে আরও লেখা হয় যে, ক্লিনিকাল ট্রায়ালে দেখা গিয়েছে যে দ্বিতীয় ডোজের তিন মাস পরেও কোভ্যাক্সিনের প্রভাবে শরীরের করোনা প্রতিরোধকারী শক্তিশালী অ্যান্টিবডির উপস্থিতি রয়েছে। দ্বিতীয় দফারর ট্রায়ালেও ভালো ফল মিলেছে কোভ্যাক্সিনের। শুধু তাই নয়, কোভ্যাক্সিন স্থানান্তর ও সংরক্ষণের ক্ষেত্রে আদর্শ তাপমাত্রাও যাচাই করা হয়। সেই অনুযায়ী ২-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় রাখলেই ভালো থাকবে কোভ্যাক্সিন। সাধারণত এই তাপমাত্রায় বেশ কিছু টিকা ও ওষুধ সংরক্ষণ করা হয়। তাই কোভ্যাক্সিনের ক্ষেত্রে এই তাপমাত্রা নিঃসন্দেহে একটি প্লাস পয়েন্ট।

ল্যান্সেটের এই ট্রায়ালে অংশ নেন ১২-১৮ বছর ও ৫৫-৬৫ বছরের স্বেচ্ছাসেবীরা। তবে এর পরবর্তী পর্যায়ের স্টাডি হিসাবে ৬৫-র উর্ধ্বে ও ছোট শিশুদের নিয়ে ট্রায়াল প্রয়োজন বলে জানিয়েছে ল্যান্সেট। শুধু তাই নয়, আরও বিভিন্ন স্থানের বিভিন্ন জাতির মানুষের উপরেও এই রূপ পরীক্ষা করা উচিত বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

চলতি মাসেই কোভ্যাক্সিনের কার্যকারিতা ৮১% বলে দাবি করেছে ভারত বায়োটেক। এরপর ল্যান্সেট-এর এই রিপোর্টের ফলে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে আরও উজ্জ্বল হল ভারতের মেডিকেল শিল্পের নাম।

আপাতত ভারতে চলছে দ্বিতীয় দফার টিকাকরণ। ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি ও ৪৫-এর উর্ধ্বে কো-মর্বিডিটি রয়েছে এমন ব্যক্তিদের ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে চলছে করোনা যোদ্ধাদের টিকাকরণের কাজও। 

বন্ধ করুন