বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Paytm, Zomato, Nykaa-র শেয়ারে রেকর্ড পতন, ইউনিকর্নের দাপটের যুগ শেষ?
ফাইল ছবি (এডিটেড) : রয়টার্স (Reuters(Background))
ফাইল ছবি (এডিটেড) : রয়টার্স (Reuters(Background))

Paytm, Zomato, Nykaa-র শেয়ারে রেকর্ড পতন, ইউনিকর্নের দাপটের যুগ শেষ?

  • সংস্থা আসল ব্যবসাটা কেমন করছে, তাতে লাভ-ক্ষতি কতটা, আগামী পরিকল্পনা কী, সেই মূল বিষয়েই শেষমেশ সকলে নজর দেবেন। এমনটাই মত বিনিয়োগকারী, বাজার বিশেষজ্ঞদের। 

গত বছর শেয়ার বাজার জুড়ে খালিই ভারতীয় টেক স্টার্টআপের নাম। Paytm, Zomato, PolicyBazaar এবং Nykaa- চারটি ইউনিকর্ন সংস্থাই বাজারে প্রবেশ করেছে। মুহূর্তে নেটওয়ার্থ বেড়ে গিয়েছে সংস্থার প্রধানদের। কিন্তু প্রাথমিক উত্থানই সার। চলতি সপ্তাহে রেকর্ড পতন হয়েছে দরের। আর তার থেকেই সিঁদুরে মেঘ দেখছেন নতুন বিনিয়োগকারীরা। তবে কি এটা ইউনিকর্নের যুগ নয়? পুরোটাই 'হুজুগ'?

চলতি সপ্তাহের সোমবার Paytm-এর শেয়ার এক ধাক্কায় ৬%-এরও বেশি কমে গিয়েছে। ২,১৫০ টাকার ইস্যু প্রাইস ছিল। সোমবার শেয়ার দর ৮৮০ টাকা হয়ে গিয়েছে। ১৬ বিলিয়ন থেকে ভ্যালুয়েশন নেমে ৭.৭ বিলিয়ন হয়েছে।

Nykaa শেয়ারও ১৩%-এর বেশি পড়েছে। এক সময়ের সর্বোচ্চ ২,৫৭৪ টাকা থেকে নেমে ১,৬৯৩ টাকা হয়েছে।

Zomato-র শেয়ারের পতন সবচেয়ে বেশি। সর্বকালের সর্বোচ্চ ছিল ১৬৯.১০ টাকা। সেটা কমে ৯১.৭ টাকা করে হয়ে গিয়েছে।

অন্যদিকে PolicyBazaar কমেছে ৯%। ১,৪৭০ টাকার সর্বোচ্চ থেকে কমে ৭৬৬ টাকা হয়েছে।

সাম্প্রতিক এই পতন কিন্তু সার্বিক নয়। টেক স্টার্টআপগুলি বাদ দিলে, অন্যান্য ভারতীয় স্টকে কিন্তু এতটা খারাপ প্রভাব পড়েনি। করোনা মহামারীর মধ্যেও সোঁ সোঁ করে সাফল্যের সিঁড়ি চড়েছিল টেক স্টার্টআপগুলি। কিন্তু শেয়ার বাজারে হঠাত্ ঘট উল্টে গেল তাদের। এ যেন সাপ-লুডো খেলার সিঁড়ির মতো। অনেক বিশ্লেষক যদিও এই পতনকে 'সংশোধন' হিসাবে অভিহিত করেছেন।

বিশ্লেষকদের মতে, শেয়ার বাজারে শুরু থেকেই চড়া দামের দিন শেষের দিকে।

'স্টার্টআপগুলির অপারেশন, ব্যয় নীতি, মুনাফা কাঠামোতে পরিবর্তন আনতে সময় লাগে। কিন্তু তার মধ্যেই বাজারের সেন্টিমেন্ট দ্রুত পাল্টে যায়,' এক টুইটে বলেন বাজার বিশেষজ্ঞ শৈলেন্দ্র সিং।

তিনি আরও বলেন, 'আগামিদিনে স্টার্টআপ ফান্ডিংয়ের পরিবেশ আরও সুপরিকল্পিত হোক, এই কামনা করি। সৌভাগ্যক্রমে, আবার রেভেনিউ, প্রোডাক্ট, ব্যয় সংকোচন ইত্যাদির উপরেই নজর ফিরছে সকলের।'

অনেকের মতে, ভারতে স্টার্ট আপ কালচার বেশ গ্ল্যামারাস। একজন ভারতীয় কয়েক বছরেই বিশ্বমানের আধুনিক সংস্থা গছেন, এই আবেগের একটা মূল্য আছে। তার ফলে শেয়ার বাজারে সেই সেন্টিমেন্ট কিছুটা হলেও কাজ করেছে। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সেই প্রভাব কমে। ফলে সংস্থা আসল ব্যবসাটা কেমন করছে, তাতে লাভ-ক্ষতি কতটা, আগামী পরিকল্পনা কী, সেই মূল বিষয়েই শেষমেশ সকলে নজর দেবেন।

বন্ধ করুন