বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ঠোঁট ফাটা কমিয়ে গোলাপি ও নরম রাখবে এই ঘরোয়া টোটকা
অ্যালোভেরা ফাটা ঠোঁটের মেরামতিতে সাহায্য করে।
অ্যালোভেরা ফাটা ঠোঁটের মেরামতিতে সাহায্য করে।

ঠোঁট ফাটা কমিয়ে গোলাপি ও নরম রাখবে এই ঘরোয়া টোটকা

  • অত্যধিক লিপ বাম ব্যবহারের ফলেও ঠোঁট কালো হয়ে যেতে পারে। উল্লেখ্য, জলের অভাবেও ঠোঁট শুষ্ক হয়।

গোলাপি ও নরম ঠোঁট সৌন্দর্যকে এক লহমায় বহু গুণ বাড়িয়ে দেয়। কিন্তু শীতকালে আমাদের ঠোঁট হয়ে যায় শুষ্ক ও নিষ্প্রাণ। তখন বাজার থেকে কিনে আনা নামী-দামি লিপ বাম হয়ে ওঠে অপরিহার্য। তবে অনেকেই হয়ত জানেন না, অত্যধিক লিপ বাম ব্যবহারের ফলেও ঠোঁট কালো হয়ে যেতে পারে। 

আবার জলের অভাবেও ঠোঁট শুষ্ক হয়। আর শীতকালে জলপানও কমে যায়। তাই সুন্দর ও নরম ঠোঁটের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে জল পান করতে হবে। এ ছাড়াও, ঘরোয়া কিছু টোটকা আছে, যা মেনে চললে ঠোঁট হয়ে উঠবে নরম, তুলতুলে ও ফিরে পাবে তার গোলাপি আভা।

ঠোঁট ফাটা বন্ধ করার ঘরোয়া টোটকা:

নারকেল তেল- নারকেল তেলে ময়শ্চারাইজিংয়ের গুণ থাকে। যা ঠোঁট ফাটা থেকে রক্ষা করে। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে নারকেল তেল লাগালে ঠোঁট মোলায়েম ও উজ্জ্বল থাকে।

মধু- শীতকালে অনেকেরই ঠোঁট ফেটে রক্ত বেরিয়ে যায় ও ব্যথা করে। মধু ঠোঁট ফাটা বন্ধ করতে পারে। মধুতে অ্যান্টি ব্যক্টিরিয়াল ও ঘা ঠিক করার গুণ থাকে। 

অ্যালোভেরা- এতে বিদ্যমান মিউকোপলিসৈকরাইডস ফাটা ঠোঁটের মেরামতিতে সাহায্য করে।

বাদাম তেল- বাদাম তেলে এমোলিয়েন্ট গুণ থাকে। যা ত্বককে ভিতর পর্যন্ত আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে। ঠোঁটে বাদাম তেল লাগালে, তা নরম থাকে।

বন্ধ করুন