বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নোনতা কিনলেই ঠান্ডা পানীয় ফ্রি, স্বপন দাশগুপ্তের অভিযোগের পর সিদ্ধান্ত ইন্ডিগোর

নোনতা কিনলেই ঠান্ডা পানীয় ফ্রি, স্বপন দাশগুপ্তের অভিযোগের পর সিদ্ধান্ত ইন্ডিগোর

ইন্ডিগো এয়ারলাইন্স। (MINT_PRINT)

মঙ্গলবার ইন্ডিগোর দিল্লিগামী বিমানে নরম পনীয় কিনতে চেয়েছিলেন বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত। কিন্তু, তাঁকে বলা হয় স্নাকস কিনলে তবেই নরম পানীয় দেওয়া হবে। তাই নিয়ে মাঝ আকাশে বিমান কর্মীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েছিলেন বাংলার এই বিজেপি নেতা। 

ইন্ডিগো বিমানে নরম পানীয় বিক্রি নিয়ে বিজেপির প্রাক্তন সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তের অভিযোগের পরেই নড়েচড়ে বসল কর্তৃপক্ষ। তারা জানিয়েছে, স্ন্যাকস কিনলেই এবার থেকে ফ্রি ঠান্ডা পানীয় পাবেন। তবে ইন্ডিগোর আর ক্যানে পানীয় দেবে না, এটাও স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে।  এবিষয়ে, ইন্ডিগোর একজন মুখপাত্র মঙ্গলবার বলেছেন, এয়ারলাইনটি আরও ভাল এবং সাশ্রয়ী মূল্যের ক্যাটারিং অভিজ্ঞতা প্রদানের জন্য তাদের পরিষেবাগুলি পরিবর্তন করেছে। তিনি জানিয়েছেন, এটি পরিবেশবান্ধব উদ্যোগ। কারণ হাজার হাজার ক্যান ফেলে দিতে হয়।

আরও পড়ুন: Smoking: মাঝ আকাশে বিমানেই সিগারেট ধরালেন বাঙালি তরুণী, যা-তা ব্য়াপার ইন্ডিগোতে

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ইন্ডিগোর দিল্লিগামী বিমানে নরম পনীয় কিনতে চেয়েছিলেন বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত। কিন্তু, তাঁকে বলা হয় স্নাকস কিনলে তবেই নরম পানীয় দেওয়া হবে। তাই নিয়ে মাঝ আকাশে বিমান কর্মীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েছিলেন বাংলার এই বিজেপি নেতা। এয়ারলাইন্সের এই নীতি নিয়ে তিনি বেজায় ক্ষুদ্র হয়েছিলেন। এরপরে নিজের এক্স হ্যান্ডেল ইন্ডিগোর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন প্রাক্তন সাংসদ। তিনি লেখেন, ‘ইন্ডিগোর আন্তর্জাতিক এবং আন্তর্দেশীয় উড়ানে যাত্রীদের খাবার কিংবা পানীয় দেওয়া হয় না। অথচ এয়ার ইন্ডিয়া সহ বিভিন্ন বিমান সংস্থা একাধিক খাবার, পানীয় যাত্রীদের দিয়ে থাকে।’ এর পরে এক্স হ্যান্ডেলে বিমান সংস্থার বাধ্যতামূলক এই নীতিকে ‘জবরদস্তি করা’ বলে উল্লেখ করে অসামরিক বিমান পরিবহনমন্ত্রী জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। নিজের পোস্টের সঙ্গে তাঁকে ট্যাগ করেন এবং এ বিষয়ে মন্ত্রীকে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ করেন।

স্বপন দাশগুপ্ত আরও লেখেন, ‘এভাবে ভাবে ইন্ডিগোর পক্ষে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা কঠিন হবে। যদিও এই ঘটনায় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রীর বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে মনে করা হচ্ছে প্রাক্তন বিজেপি সাংসদের এই প্রতিবাদের পরে বিমান সংস্থার তরফে এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। বিমান সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, তাদের আগের মেনুতে ছিল কাজু (২০০ টাকা) এবং একটি কোক (১০০ টাকা)। তবে এবার থেকে এক গ্লাস জুস বা কোক যাত্রীরা কিনতে পারবেন। যার দাম হল ২০০ টাকা। অর্থাৎ স্ন্যাকস কিনলেই আপনি ফ্রি-তে নিজের পছন্দের কোনও ঠান্ডা পানীয় পাবেন। কিন্তু কেউ যদি শুধু পানীয় চান, তাহলে কী হবে, সেটা এখনও স্পষ্ট নয়।  

বন্ধ করুন