বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Family Court on Sindoor: হিন্দু নারীদের সিঁদুর পরা ধর্মীয় দায়িত্ব,না হলে তা স্বামীর প্রতি নিষ্ঠুরতা, বলল পারিবারিক আদালত

Family Court on Sindoor: হিন্দু নারীদের সিঁদুর পরা ধর্মীয় দায়িত্ব,না হলে তা স্বামীর প্রতি নিষ্ঠুরতা, বলল পারিবারিক আদালত

হিন্দু নারীদের সিঁদুর পরা ধর্মীয় দায়িত্ব, পর্যবেক্ষণ পারিবারিক আদালতের

মামলা চলাকালীন অভিযুক্ত স্ত্রী বলেছিলেন, স্বামীর সঙ্গে থাকেন না বলে সিঁদুর পরেন না তিনি। পরে আদালত সেই মহিলাকে তাঁর স্বামীর কাছে ফিরতে নির্দেশ দেয়।

মহিলাদের সিঁদুর পরা নিয়ে এক বড় পর্যবেক্ষণ দিল মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের একটি পারিবারিক আদালত। হিন্দু ধর্মাবলম্বী বিবাহিত মহিলারা সিঁথিতে সিঁদুর না পরলে তা স্বামীর প্রতি নিষ্ঠুরতা। এমনই বক্তব্য সেই পারিবারিক আদালতের। উল্লেখ্য, সিঁদুর না পরার বিষয়ে স্ত্রীর বিরুদ্ধে পারিবারিক আদালতে গিয়েছিল স্বামী। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই পারিবারিক আদালত রায় দেয় মামলাকারী স্বামীর পক্ষে। এই আবহে স্ত্রীকে স্বামীর ঘরে ফেরার এবং সিঁথিতে নিয়মিত সিঁদুর পরার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আদালতের পর্যবেক্ষণ, হিন্দু নারীদের সিঁদুর পরা ধর্মীয় দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। না হলে তা স্বামীর প্রতি নিষ্ঠুরতা। (আরও পড়ুন: 'কিডনির বিনিময়ে মেয়েকে লোকসভা ভোটের টিকিট দিয়েছেন লালু', বিস্ফোরক BJP)

আরও পড়ুন: দুর্নীতির 'মাথা' কেজরি, দাবি ইডির, BJP-কে ৪৪ কোটি চাঁদা দেওয়া ব্যবসায়ী রাজসাক্ষী

আরও পড়ুন: রাশিয়ায় ২৬/১১ ধাঁচে হামলা, সামনে এল নয়া তথ্য, দায় স্বীকার IS-এর, মৃত বেড়ে ৬০

এদিকে মামলা চলাকালীন অভিযুক্ত স্ত্রী বলেছিলেন, স্বামীর সঙ্গে থাকেন না বলে সিঁদুর পরেন না তিনি। পরে আদালত সেই মহিলাকে তাঁর স্বামীর কাছে ফিরতে নির্দেশ দেয়। গুয়াহাটি হাই কোর্টের একটি পর্যবেক্ষণকে ভিত্তি করে ইন্দোরের বিচারক বলেন, সিঁদুর না পরে স্ত্রী নিজের স্বামীর প্রতি নিষ্ঠুর আচরণ করছেন। এই আবহে তাঁকে স্বামীর কাছে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেয় আদালত। আদালতের পর্যবেক্ষণ, স্বামীকে ত্যাগ করেননি স্ত্রী। তাঁদের মধ্যে বর্তমানে বিবাহবিচ্ছেদের কোনও মামলাও নেই। স্ত্রী স্বেচ্ছায় আলাদা থাকেন। তবে এর নেপথ্যে কোনও আইনি বাধ্যবাধকতা বা কারণ নেই। তাই স্ত্রীকে স্বামীর কাছে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেন বিচারক। (আরও পড়ুন: গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে জর্জরিত খলিস্তানিরা, পাক মদতে খোঁজ নয়া নেতার, দাবি রিপোর্টে)

আরও পড়ুন: 'ওরা পরম বন্ধু', ভারত বন্দনায় মুইজ্জু, পকেটে টান পড়তেই নয়া আবদার মলদ্বীপের

যদিও আলাদা থাকার কারণ হিসেবে স্ত্রী দাবি করেছিলেন, তাঁর স্বামী মাদকাশক্ত। এমনকী পণের জন্য তাঁর স্বামী তাঁর ওপর শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন চালান বলেও অভিযোগ করেন স্ত্রী। এই কারণেই নাকি তিনি স্বামীকে ছেড়ে অন্যত্র থাকেন। আর তিনি যেহেতু স্বামীর সঙ্গে থাকেন না, তাই সিঁথিতে সিঁদুরও পরেন না। এমনকী আদালতেও সিঁদর ছাড়াই হাজির হয়েছিলেন সেই মহিলা। এদিকে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী পুলিশে কোনও অভিযোগ করেননি। তবে দুই পক্ষের সওয়াল জবাব শুনে বিচারক স্বামীর পক্ষেই রায় দেন। গত ১ মার্চ এই মামলার রায় দিয়েছিলেন বিচারক। সম্প্রতি তা জনসমক্ষে এসেছে। নিজের রায়তে বিচারক বলেন, 'একজন মহিলা যে বিবাহিত তা প্রদর্শন করে তাঁর সিঁথির সিঁদুর।'

ঘরে বাইরে খবর

Latest News

নীতি আয়োগের বৈঠক বয়কট করছেন এমকে স্ট্যালিন, কেন এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিলেন?‌‌ ‘অন্য মেয়ে ঘর করলে বুঝত…', যিশুর বউ হওয়া সহজ নয়! গোপন কথা ফাঁস করেন নীলাঞ্জনা রাহুলকে ব্যান করায় ফুঁসছে টলিউড, জট কাটাতে কবে বৈঠকে বসছেন পরিচালকরা? দাদা-বউদির বিয়ের পরই কলকাতা ছাড়লেন দীপ্সিতা, শোভন-সোহিনীও কি সঙ্গে গেলেন? 'আয় করলে ট্যাক্স, খরচ করলে ট্যাক্স...' মজার ছলে মধ্যবিত্তের কষ্ট বোঝালেন অভিজিৎ অঞ্জলিকে নিয়ে মানহানিকর পোস্ট সরান, গুগল-এক্সকে নির্দেশ দিল দিল্লি হাইকোর্ট ৭.৭৫ লাখ টাকা ইনকাম করেও আয়কর দিতে হবে না! কাজে লাগাতে হবে এই উপায়, রইল হিসাব কেন্দ্রীয় বাজেট নিয়ে সংসদে আলোচনা বুধবার, লোকসভায় প্রথম বক্তৃতা করবেন অভিষেক এই তারকারা আমিষ খান না আর, যে যে কারণে নিরামিষাশী হয়েছেন করিনা, আমিররা গ্যাস অম্বলের সমস্যায় জেরবার? ওষুধ না খেয়ে ভরসা রাখুন এই ঘরোয়া টোটকার ওপর

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.