দিল্লি পুলিশের সূত্র থেকে পাওয়া
দিল্লি পুলিশের সূত্র থেকে পাওয়া

জেএনইউ কাণ্ড- হামলা চালিয়েছে ঐশী ঘোষ, দাবি দিল্লি পুলিশের

নয়জন সন্দেহভাজনের ছবি প্রকাশ করেছে দিল্লি পুলিশ।

জেএনইউ কাণ্ড নয়া মোড়। আহত জেএনইউ ছাত্র সংসদের প্রেসিডেন্ট ঐশী ঘোষই অন্যতম অভিযুক্ত বলে দাবি করল দিল্লি পুলিশ।

নয় সন্দেহভাজনের ছবি প্রকাশ করেছে পুলিশ। এর মধ্যে একটি ঐশীর ছবি বলেই দাবি তাদের। নয় জনের মধ্যে সাতজন বামপন্থী ও দুইজন ডানপন্থী ছাত্র সংগঠনের অংশ বলে জানিয়েছে পুলিশ। এদিন ক্রাইম ব্রাঞ্চের ডিসিপি জয় তির্কে বলেন যে বেশিরভাগ ছাত্র শীতকালীন সেমিস্টারের জন্য রেজিস্টার করতে চেয়েছিল, কিন্তু তাদের আটকায় বামপন্থীরা, বলেই পুলিশের দাবি। গত রবিবার পেরিয়ার হস্টেলের বিশেষ কিছু ঘরকে নিশানা করা হয়েছিল বলে জানিয়েছে পুুলিশ।

ঐশী ঘোষ সহ অন্যান্যরা ছাত্রদের ওপর হামলা চালিয়েছিল বলেই দাবি পুলিশের। সিসিটিভি ফুটেজে ওঠা বিভিন্ন ছবিও নিজেদের দাবির সমর্থনে প্রকাশ করেছে পুলিশ। একটিতে দেখা যাচ্ছে মুখোশধারীদের সঙ্গে যাচ্ছে একটি মেয়ে। পুলিশের দাবি মেয়েটি ঐশী।


অভিযুক্তদের এখনও আটক না করা হলেও খুব দ্রুতই জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এসআইটি চিফ জানিয়েছেন যে এখনও পর্যন্ত তিনটি কেস দাখিল করা হেছে। পুলিশের দাবি যে ৩ তারিখ কমপিউটার রুমে ঢুকে ছাত্ররা সার্ভার নষ্ট করে দেন, হাতাহাতি করেন ওখানকার কর্মচারীদের সঙ্গে। পরের দিনও ছাত্ররা হামলা করেন ও সার্ভার রুমের একটি কাঁচের দরজা ভেঙে দেয় বলে দাবি করেন পুলিশকর্তা।

এই অভিযোগ যদিও খণ্ডণ করেছেন ঐশী ঘোষ। যা প্রমাণ আছে তাঁর বিরুদ্ধে, পুলিশের সেগুলি প্রকাশ করা উচিত বলে জানিয়েছেন তিনি।



বন্ধ করুন