বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'গোমূত্র-গোবর দিয়ে করোনার নিরাময় হয় না',পোস্ট করে গ্রেফতার সাংবাদিক-সমাজকর্মী
কিশোরচন্দ্র ও ইরেন্দ্রো ফেসবুকে লেখেন, 'গো-মূত্র এবং গোবর দিয়ে কোভিড-১৯-এর নিরাময় হয় না।' ছবি : ফেসবুক (Facebook)
কিশোরচন্দ্র ও ইরেন্দ্রো ফেসবুকে লেখেন, 'গো-মূত্র এবং গোবর দিয়ে কোভিড-১৯-এর নিরাময় হয় না।' ছবি : ফেসবুক (Facebook)

'গোমূত্র-গোবর দিয়ে করোনার নিরাময় হয় না',পোস্ট করে গ্রেফতার সাংবাদিক-সমাজকর্মী

তাঁদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনেছে বিজেপি নেতৃত্ব। তাঁদের পোস্ট দেশের সুরক্ষার বিরোধী বলে অভিযোগ করেন তাঁরা।

করোনা রোধে গোমূত্র-গোবরের 'কার্যকারিতা' নিয়ে বিজেপি নেতাদের দাওয়াই নতুন নয়। এভাবে মোটেই করোনা আটকানো যায় না, লিখে ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন মণিপুরের সাংবাদিক কিশোরচন্দ্র ওয়াংখেম (Kishorchandra Wangkhem)। আর তারপরেই জাতীয় সুরক্ষা আইনের আওতায় গ্রেফতার করা হল তাঁকে। গ্রেফতার করা হল সমাজকর্মী ইরেন্দ্রো লেইচম্বাম (Erendro Leichombam)-কেও। তাঁদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনেছে বিজেপি নেতৃত্ব। তাঁদের পোস্ট দেশের সুরক্ষার বিরোধী বলে অভিযোগ করেন তাঁরা।

গত সপ্তাহে কোভিড আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় মণিপুর বিজেপির রাজ্য সভাপতি এস টিকেন্দ্র সিং। তার প্রেক্ষিতেই কিশোরচন্দ্র ও ইরেন্দ্রো ফেসবুকে লেখেন, 'গোমূত্র এবং গোবর দিয়ে কোভিড-১৯-এর নিরাময় হয় না।'

এরপরেই তাঁদের পোস্ট নিয়ে সমালোচনার ঝড় তোলে বিজেপি নেতৃত্ব। পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন মণিপুরে বিজেপির সহ-সভাপতি উশম দেবেন সিং এবং সাধারণ সম্পাদক পি প্রেমানন্দ মেতেই। এরপরেই তড়িঘড়ি পদক্ষেপ করে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার কিশোরচন্দ্র ও ইরেন্দ্রোকে গ্রেফতার করা হয়। সোমবার তাঁদের বিরুদ্ধে জাতীয় সুরক্ষা আইন (National Security Act) লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়।

এর আগেও অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় কার্যকলাপের জন্য কিশোরচন্দ্রের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা দায়ের করা হয়। গত ২০১৮ সাল থেকেই একাধিকবার ফেসবুক পোস্টের জেরে আটক করা হয় তাঁকে। ২০২০ সালে জুলাই মাসে মণিপুরের রাজা সানজোবা লেশেম্বা অমিত শাহকে শুভেচ্ছা জানিয়ে একটি পোস্ট করেন। তাতে বিতর্কিত কমেন্ট করেছিলেন কিশোরচন্দ্র।

বন্ধ করুন