বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'মাদকের কোনও ধর্ম নেই', ধর্মযাজকের 'নারকোটিক জিহাদ' তত্ত্বের পালটা দিলেন বিজয়ন
কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন (ছবি : এএনআই)
কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন (ছবি : এএনআই)

'মাদকের কোনও ধর্ম নেই', ধর্মযাজকের 'নারকোটিক জিহাদ' তত্ত্বের পালটা দিলেন বিজয়ন

  • কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের স্পষ্ট বক্তব্য, 'মাদকের কোনও ধর্ম নেই।'

কেরলে 'নারকোটিক জিহাদ' চলছে বলে অভিযোগ করেছিলেন সেরাজ্যের ধর্মযাজক মার যোশেফ কালারানগাট। তাঁর অভিযোগ ছিল, বেছে বেছে হিন্দু এবং খ্রিস্টান মেয়েদের শিকার বানিয়ে জঙ্গি দলে যোগ দেওয়ানোর ছক কষছে কেরলের জিহাদিরা। এই বিস্ফোরক অভিযোগের বিরুদ্ধে এবার মুখ খুললেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য, 'মাদকের কোনও ধর্ম নেই।' এদিকে এহেন বিতর্কিত মন্তব্য করায় ধর্মযাজকের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তুলেছে কেরলের মুসলিম সংগঠনগুলি। কংগ্রেসও এই মন্তব্যের কড়া নিন্দা জানিয়েছে।

এই প্রসঙ্গে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন বলেন, 'এটা একটি নতুন শব্দবন্ধ। আমি কখনও ভাবিনি যে তাঁর (ধর্মযাজক মার যোশেফ কালারানগাট) মতো একজন লোক এই মন্তব্য করবেন। আমি জানি না এরম মন্তব্য তিনি কেন করেছেন। মাদকের সঙ্গে কোনও ধর্মের যোগ নেই। এবং কেউই এই বিষয়টিকে উৎসাহিত করে না।'

এদিকে যোশেফ কালারানগাটের অভিযোগ, আইএস জঙ্গি সংগঠনে নাম লেখাতে বেশ কয়েকজন মহিলা কেরল থেকে গিয়েছে আফগানিস্তানে। সেই দলে ছিলেন দুই ক্যাথলিক- নিমিষা এবং সনিয়া। ধর্মান্তরিত হওয়ার পর ফতিমা এবং আয়েশা নামে পরিচিত হয়। ধর্মযাজকের দাবি, জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবিরে ওই মহিলাদের সঙ্গে কী কী ঘটেছিল তা খতিয়ে দেখা উচিত। তিনি মগজ ধোলাইয়ের তত্ত্ব খাড়া করেন এই প্রসঙ্গে। তাঁর দাবি, অবিলম্বে এই বিষয়ে পদক্ষেপ না নিলে জিহাদিরা 'নারকোটিক জিহাদে'র মাধ্যমে মগজ ধোলাই করে আরও মেয়েদের জঙ্গিদলে নাম লেখাতে প্ররোচনা দেবে।

বন্ধ করুন