বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নিতে দেবেন না করোনা টিকা, স্ত্রী'র আধার কার্ড নিয়ে সটান গাছে উঠলেন ব্যক্তি!
গাছে উঠে ওই ব্যক্তি। (হিন্দুস্তান টাইমস)
গাছে উঠে ওই ব্যক্তি। (হিন্দুস্তান টাইমস)

নিতে দেবেন না করোনা টিকা, স্ত্রী'র আধার কার্ড নিয়ে সটান গাছে উঠলেন ব্যক্তি!

  • নিজে তো করোনাভাইরাস টিকা নেবেন না। স্ত্রী'কে নিতেও দেবেন না।

নিজে তো করোনাভাইরাস টিকা নেবেন না। স্ত্রী'কে নিতেও দেবেন না। তাই স্ত্রী'র আধার কার্ড নিয়ে সটান গাছে উঠে গেলেন। এমনই ঘটনা ঘটল মধ্যপ্রদেশের রাজগড় জেলার পাতান কালান গ্রামের। 

'হিন্দুস্তান টাইমস' গ্রুপের 'লাইভ হিন্দুস্তান'-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, সম্প্রতি টিকাকরণের জন্য রাজগড় জেলার পাতান কালান গ্রামে গিয়েছিলেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। অনেক গ্রামবাসীই টিকা নিতে ক্যাম্পে আসেন। কিন্তু কানওয়ারলাল নামে এক ব্যক্তি বেঁকে বসেন। নিজে টিকা নেননি। অনেক বুঝিয়ে তাঁর স্ত্রী'কে টিকা নিতে রাজি করিয়ে ফেলেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় টিকাকরণ শিবিরে। সেই খবর জানতে পেরেই স্ত্রী'র আধার কার্ড নিয়ে সটান গাছে উঠে পড়েন ওই ব্যক্তি। করোনা টিকাকরণের সময় যেহেতু আধার কার্ডের মতো পরিচয়পত্র আবশ্যিক, তাই কানওয়ারলালকে নেমে আসতে বলেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু নিজের জেদে অনড় থাকেন। স্বাস্থ্যকর্মীরা গ্রাম থেকে যাওয়ার পরই রণেভঙ্গ দেন। নেমে পড়েন গাছ থেকে।

সেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান স্থানীয় ব্লকের স্বাস্থ্য আধিকারিক। কথা বলেন কানওয়ারলালের সঙ্গে। জানা যায়, প্রবল জ্বর, গায়ে ব্যথা এবং সর্দির ভয়ে নিজে টিকা নেননি ওই ব্যক্তি। স্ত্রী'কেও নিতে দেননি। যদিও করোনা টিকাকরণের পর জ্বর এবং গায়ে ব্যথা একেবারে স্বাভাবিক পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া। তা দিনকয়েকের মধ্যে সেরেও যায়। শেষপর্যন্ত টিকাকরণ নিয়ে কানওয়ারলালের বিভ্রান্তি দূর করেন ওই স্বাস্থ্য আধিকারিক। টিকা নিতেও রাজি হন ওই ব্যক্তি। গ্রামেরই অন্য একটি শিবিরে স্ত্রী'র সঙ্গে টিকা নেবেন তিনি।

বন্ধ করুন