বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জেফ বেজোসের মহাকাশযান তৈরিতে হাত লাগিয়ে ছোটবেলার স্বপ্ন পূরণ ভারতের সঞ্জলের
সঞ্জল গাভান্দে (ছবি সৌজন্যে ফেসবুক)
সঞ্জল গাভান্দে (ছবি সৌজন্যে ফেসবুক)

জেফ বেজোসের মহাকাশযান তৈরিতে হাত লাগিয়ে ছোটবেলার স্বপ্ন পূরণ ভারতের সঞ্জলের

  • ব্লু অরিজিনের মহাকাশযান তৈরির দায়িত্বে থাকা ইঞ্জনিয়রদের মধ্যে অন্যতম ইঞ্জিনিয়ার হলেন মহারাষ্ট্রের কল্যাণে জন্ম নেওয়া সঞ্জল গাভান্দে।

আর কয়েকদিন পরেই মহাকাশের উদ্দেশে ব্লু অরিজিন সংস্থার নিউ শেফার্ড যানটি করে উড়ে যাবেন জেফ বেজস। বেজোসের স্বপ্নের মহাকাশযানের তৈরিতে হাত লাগিয়েছেন এক ভারতীয়। জানা গিয়েছে ব্লু অরিজিনের মহাকাশযান তৈরির দায়িত্বে থাকা ইঞ্জনিয়রদের মধ্যে অন্যতম মহারাষ্ট্রের কল্যাণে জন্ম নেওয়া সঞ্জল গাভান্দে। ৩০ বছরের সঞ্জল সেই দলের অংশ যেটি নিউ শেফার্ড তৈরির দায়িত্বে ছিল।

জানা গিয়েছে, সঞ্জল কল্যাণের কোলসেওয়াড়ি এলাকায় বাস করেন। তাঁর বাবা মুম্বই কর্পোরেশনের কর্মী। মুম্বই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করে সঞ্জল পাড়ি দেন আমেরিকা। র্তি হন মিশিগান টেকনোলজিক বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখান থেকে নিজের মাস্টার ডিগ্রি লাভ করেন সঞ্জল। সেই সময় এরোস্পেস নিয়েও পড়াশোনা করেন সঞ্জল।

সঞ্জল এই প্রোজেক্টে কাজ করার আগে ব্রানসউইক কর্পোরেশনের মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভিশনের সঙ্গে কাজ করেন। এরপর টয়োটা রেসিংয়েও কাজ করেছেন তিনি। নাসাতে আবেদন জানালেও নাগরিকত্বের কারণে সেখানে সুযোগ পাননি তিনি। তাঁর কমার্শিয়াল পাইলটের লাইসেন্স রয়েছে।

টিম ব্লু অরিজিনের অংশ হতে পেরে সঞ্জল নিজে খুব গর্বিত বোধ করছেন বলে জানান টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে। তিনি বলেন, 'আমি খুবই আনন্দিত যে আমি আমার ছোটবেলার স্বপ্ন পূরণ করতে পপারছি। আমি ব্লু অরিজিনেক অংশ হতে পেরে খুবই গর্বিত।' এদিকে সঞ্জলের বাবা অশোক গাভান্দে ইন্ডিয়া টুডেকে বলেছেন, 'সঞ্জল ছোটবেলা থেকেই মহাকাশযান তৈরি করতে চাইত। এই কারণেই মাস্টারস করার সময় এরোস্পেস বিষয়টি সে বেছে নিয়েছিল।' সঞ্জলের মা জানান, মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়ায় সঞ্জলকে নিয়ে আত্মীরা প্রশ্ন তুলত, ও তো মেয়ে, তাহলে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে কেন পড়ছে? সেসব প্রশ্নের জবাব ধীরে ধীরে নিজের কাজের মাধ্যমেই দিয়েছেন সঞ্জল।

বন্ধ করুন