বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'মটন বাছবে নাকি আমায়', ত্রিকোণ 'প্রেমে' স্ত্রী'কে শর্ত যুবকের!
'মটন বাছবে নাকি আমায়', ত্রিকোণ 'প্রেমে' স্ত্রী'কে শর্ত যুবকের! (ছবিটি প্রতীকী) (PTI)
'মটন বাছবে নাকি আমায়', ত্রিকোণ 'প্রেমে' স্ত্রী'কে শর্ত যুবকের! (ছবিটি প্রতীকী) (PTI)

'মটন বাছবে নাকি আমায়', ত্রিকোণ 'প্রেমে' স্ত্রী'কে শর্ত যুবকের!

  • এখন স্বামীর প্রশ্ন সে 'স্বামীকে চাই না মটন চাই।' স্বামীর এই প্রশ্নই কার্যত ভাইরাল হয়ে গেছে নেটবিশ্বে।

ত্রিকোণ প্রেমের সমস্যা অনেকেরই জীবনে এসে থাকে। অনেকেই সেই সমস্যার সমাধান চেয়ে কলাম লিখিয়ের কাছে চিঠি লেখেন। সম্প্রতি এক কলাম লেখকের কাছে এমন এক ত্রিকোণ প্রেমের সমস্যা এসেছে যা দেখে কার্যত সকলেই অবাক। ত্রিকোণ প্রেম এরকমও হতে পারে!

এখানে ত্রিকোণ প্রেমের ক্ষেত্রে তৃতীয় ব্যাক্তিটি কোনও পুরুষ বা মহিলা নন, তিনি হলেন 'মটন'। আর তা নিয়েই শুরু হয়ে গেছে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝামেলা। এখন স্বামীর প্রশ্ন সে 'স্বামীকে চাই না মটন চাই।' স্বামীর এই প্রশ্নই কার্যত ভাইরাল হয়ে গিয়েছে নেটবিশ্বে।

জানা গিয়েছে, স্বামী নিরামিষাশী। সেই কারণে তিনি নিরামিষাশী পাত্রীকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন। নিরামিষাশী জেনেই স্ত্রী'কে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু, বিয়ের পরে প্রকাশ্যে আসে আসল ঘটনা। স্ত্রী যে আদৌও নিরামিষাশী নয়, তা জেনে যান স্বামী। আর তাতেই ঘটে বিপত্তি। মটন খেতে তার খুব ভালো লাগে তাঁর স্ত্রী'র। শুধু তাই নয়, মাঝেমধ্যেই গোপনে মটন খেয়ে আসেন। আর সেই কথা জানতে পারার পরেই কার্যত অগ্নিশ্বর হয়ে ওঠেন স্বামী। কারণ আমিষ তার একেবারেই চক্ষুশূল।

সম্পর্কের মধ্যে এই সমস্যার সমাধান চেয়ে সম্প্রতি এক পত্রিকার কলামে একথা জানিয়ে একটি চিঠি দিয়েছেন ওই ব্যক্তি। তা থেকেই এই ত্রিকোণ প্রেমের ঘটনা নেটদুনিয়াতে ছড়িয়ে পড়ে।

চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ' পাত্রী নিরামিষাশী জেনেই বিয়ে করেছিলাম। কিন্তু, পরে জানতে পারি ও মটন খেতে ভালোবাসে। গোপনে মটন খেয়ে আসে। কিন্তু আমি আমিষ একেবারেই পছন্দ করি না। আমার স্ত্রী আমাকে জানিয়েছে সে মটন ছাড়া চলতে পারবে না। আমি তাঁকে ক্ষমা করে দিয়েছি ঠিকই, কিন্তু হুঁশিয়ারি দিয়েছি যে 'হয় মটন, না হলে স্বামী' এই দুটোর মধ্যে যে কোনও একজনকে বেছে নিতে হবে। এই অবস্থায় সেই কাকে বেছে নেবে?' এই প্রশ্ন তুলে তিনি সেই চিঠি লিখেছিলেন ওই ব্যক্তি। আর নিজের নাম জানিয়েছিলেন 'পিওর ভেজ'।

এই ধরনের ত্রিকোণ প্রেম যে একেবারেই বিরল এবং স্ত্রী কাকে বেছে নিতে তা উত্তরে ভালোমতো বুঝিয়ে দিয়েছেন কলাম লিখিয়ে। উত্তরটাও দিয়েছেন বেশ কৌতুকের ছলে। চিঠির উত্তরে তিনি বলেন, 'প্রিয় শুদ্ধ নিরামিষাশী, আপনি যে ত্রিকোণ প্রেমের কথা বলছেন তা একেবারেই বিরল। নজির গড়েছেন আপনি। একজন মানুষ ভালোবাসা ছাড়া বাঁচতে পারে কিন্তু খাবার ছাড়া বাঁচতে পারেন না। তাহলে নিশ্চয় ভালোমতোই বুঝতে পারছেন তিনি কাকে বেছে নেবেন।'

বন্ধ করুন