বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > PNB কাণ্ডে বড়সড় সাফল্য! ED-কে সাহায্য নীরব মোদীর বোনের, ফেরালেন ১৭ কোটি
নীরব মোদী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
নীরব মোদী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

PNB কাণ্ডে বড়সড় সাফল্য! ED-কে সাহায্য নীরব মোদীর বোনের, ফেরালেন ১৭ কোটি

  • এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের থেকে ক্লিনচিট পেলেন নীরব মোদীর বোন পূরবী মোদী ও তাঁর স্বামী মায়াঙ্ক জৈন।

পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক জালিয়াত কাণ্ডে জড়িত নীরব মোদীর বোন ইডি-কে ১৭ কোটি টাকা ফেরালেন। আর এর ফলে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের থেকে ক্লিনচিট পেলেন নীরব মোদীর বোন পূরবী মোদী ও তাঁর স্বামী মায়াঙ্ক জৈন। তাঁদের সহযোগিতায় লন্ডনের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে ১৭ কোটি টাকা ফেরত পেল ইডি। জানা গিয়েছে, লন্ডনে বোনের নামে অ্যাকাউন্ট খুলে তাতে টাকা রেখেছিলেন নীরব মোদী। সেই টাকাই এদিন ফেরত দিয়েছেন পূরবী। বিবৃতি প্রকাশ করে ইডি জানিয়েছে, লন্ডনে বোনের অ্যাকাউন্টে পলাতক ব্যবসায়ী প্রায় ১৭.২৫ কোটি টাকা রেখেছিলেন। এদিন ভারত সরকারের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সেই টাকা জমা দিয়েছেন পূরবী মোদী।

ভারতের পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের কয়েক কোটি টাকা তছরুপের মামলায় অভিযুক্ত নীরব ভারত থেকে পালিয়ে ব্রিটেনে আত্মগোপন করেছিলেন। নীরব আপাতত ব্রিটেনের জেলে বন্দি। উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই নীরব মোদীর ভারতে প্রত্যর্পণের সিদ্ধান্তে সবুজ সংকেত দিয়েছিল ব্রিটিশ সরকার। তবে সেই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানানোর অনুমতি চেয়ে ব্রিটেনের হাইকোর্টে আবেদন জানান নীরব। এদিকে নীরব মোদীকে যে আদালত প্রত্যর্পণের নির্দেশ দিয়েছে, ওই একই আদালত বিজয় মালিয়াকেও প্রত্যর্পণের নির্দেশ দিয়েছে। আর মেহুল চোকসি সম্প্রতি ধরা পড়েছেন ডোমিনিকাতে ৷ সেখানকার আদালতে তাঁর প্রত্যর্পণের বিষয়টি নিয়ে মামলা চলছে।

এদিকে কয়েকদিন আগেই বিজয় মালিয়া, মেহুল চোকসি, ও নীরব মোদীর বাজেয়াপ্ত হওয়া সম্পত্তির একটা অংশ ব্যাঙ্কের হাতে তুলে দেওয়া হয় ইডির তরফে। হস্তান্তরিত সম্পত্তির পরিমাণ ছিল প্রায় ৯ হাজার ৩৭১ কোটি টাকা। এই তিন পলাতক ব্যবসায়ী যে ব্যাঙ্কের সঙ্গে আর্থিক প্রতারণায় অভিযুক্ত, সেই রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ককগুলিই এই টাকা দেওয়া হয়। জানা গিয়েছে যে বিজয় মালিয়া, নীরব মোদী ও মেহুল চোকসির ব্যাঙ্ক প্রতারণার আর্থিক পরিমাণ সব মিলিয়ে ২২৫৮৫.৮৩ কোটি টাকা। ইডি ইতিমধ্যে ১৮১৭০.০২ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে। এর মধ্যে বিদেশে থাকা সম্পত্তির পরিমাণ ৯৬৯ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে ব্যাঙ্কের থেকে প্রতারণা করে নেওয়া অর্থের ৮০.৪৫ শতাংশ উদ্ধার করা গিয়েছে।

 

বন্ধ করুন