বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Viral News: হাসপাতাল থেকে ছেলের মৃতদেহ ছাড়াতে চাওয়া হল ৫০ হাজার ঘুষ, ভিক্ষা বৃদ্ধ মা-বাবার
হাসপাতাল থেকে ছেলের মৃতদেহ ছাড়াতে চাওয়া হল ৫০ হাজার ঘুষ, ভিক্ষা বৃদ্ধ মা-বাবার

Viral News: হাসপাতাল থেকে ছেলের মৃতদেহ ছাড়াতে চাওয়া হল ৫০ হাজার ঘুষ, ভিক্ষা বৃদ্ধ মা-বাবার

  • ছেলের দেহ হাসপাতালে আটকে। তা ছাড়াতে প্রয়োজন ৫০ হাজার টাকা। এত টাকা নেই দম্পতির কাছে। তাই রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে ভিক্ষা করা ছাড়া উপায় নেই। বিহারের সমস্তিপুরের ঘটনা এটি।

বিচিত্র আমাদের এই দেশ ভারত। এখানে কখনও টাকার অভাবে মানুষের চিকিৎসা হয় না। আবার কখনও টাকার অভাবে মৃতদেহ পাওয়া যায় না হাসপাতাল থেকে। সম্প্রতি বিহারের এক ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিয়োতেই এক মর্মান্তিক কাহিনী প্রকাশ পেয়েছে। ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে এক বৃদ্ধ দম্পতি রাস্তায় রাস্তায় ভিক্ষা করে বেরাচ্ছেন। কারণ? ছেলের দেহ হাসপাতালে আটকে। তা ছাড়াতে প্রয়োজন ৫০ হাজার টাকা। এত টাকা নেই দম্পতির কাছে। তাই রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে ভিক্ষা করা ছাড়া উপায় নেই। বিহারের সমস্তিপুরের ঘটনা এটি।

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বৃদ্ধ মহেশ ঠাকুর এই বিষয়ে বলেন, ‘কয়েকদিন আগেই আমার ছেলে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল। পরে আমাদের কাছে একটি ফোন আসে, তাতে দাবি করা হয় যে আমার ছেলের দেহ রয়েছে সমস্তিপুরের সদর হাসপাতালে। এক হাসপাতাল কর্মী দাবি করে যে আমার ছেলের দেব ছাড়তে সে ৫০ হাজার টাকা নেবে। আমরা গরিব মানুষ। এত টাকা কোথা থেকে জোগাড় করব?’ এই আবহে ছেলের দেহ হাসপাতাল থেকে ছাড়িয়ে আনতে ভইক্ষার পথই বেছে নিয়েছেন মহেশ ও তাঁর স্ত্রী।

এদিকে জানা গিয়েছে, উক্ত হাসপাতালের কর্মীরা সময়ে বেতন পান না। এর আগেও এই হাসপাতালের কর্মীদের বিরুদ্ধে রোগীর পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সমস্তিপুরের সিভিল সার্জন ডঃ এসকে চৌধুরী বলেছেন, ‘যারা এই ঘটনার জন্য দায়ী, তাদের রেহাই দেওয়া হবে না। এটি মানবতার জন্য লজ্জাজনক।’

 

বন্ধ করুন