বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'রাম মন্দিরের জন্য সময় ছিল না, কবরস্থান তৈরিতে ব্যস্ত ছিলেন অখিলেশ', খোঁচা যোগীর
উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (HT_PRINT)
উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (HT_PRINT)

'রাম মন্দিরের জন্য সময় ছিল না, কবরস্থান তৈরিতে ব্যস্ত ছিলেন অখিলেশ', খোঁচা যোগীর

  • অখিলেশকে তোপ দেগে যোগী বলেন, ‘যারা অযোধ্যায় হিন্দুদের ওপর গুলি চালাতে দ্বিধা করেনি, তারাই এখন রাম মন্দির নির্মাণের কথা বলছে।’

সমাজবাদী পার্টির শাসনকালে সাধারণ মানুষের জমি-বাড়ি দখলের প্রসঙ্গ তুলে ফের একবার তোপ দাগলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। শনিবার সমাজবাদী পার্টির নেতা তথা রামপুরের সাংসদ আজম খানের ঘাঁটিতে গিয়ে অভিযোগ করেন সমাজবাদী পার্টির শাসনকালে ‘রামপুরী চাকু (ছুরি)’ ব্যবহার করে গরিবদের জমি দখল করা হত। পাশাপাশি যোগী অভিযোগ করেন, সমাজবাদীদের শাসনকালে মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে দাঙ্গাবাজদের সম্মানিত করা হত। উল্লেখ্য, এই আজম খান বর্তমানে কারাবন্দি রয়েছেন।

সমাজবাদী পার্টি প্রধান অখিলেশ যাদবকে আক্রমণ করে যোগী আদিত্যনাথ বলেন, ‘আমি বাবুয়াকে (পড়ুন: অখিলেশ যাদব) বলতে শুনেছি যে তারাও রাম মন্দির তৈরি করতে পারত।’ এরপর যোগী আরও বলেন, ‘কবরস্থান তৈরি করার পর তাদের হাতে সময় থাকলে তবে না তারা রাম মন্দিরের কথা ভাবত। যারা অযোধ্যায় হিন্দুদের ওপর গুলি চালাতে দ্বিধা করেনি, তারাই এখন পবিত্র নগরীতে রাম মন্দির নির্মাণের কথা বলছে।’

যোগী আদিত্যনাথ বলেন, ‘রামপুরী ছুরি ব্যবহার করার জন্য আমরা গুরু পরম্পরা (ঐতিহ্য) অনুসরণ করি। ভালো মানুষের হাতে এই ছুরি থাকলে তা দেশ ও ধর্ম রক্ষায় ব্যবহৃত হবে। কিন্তু বাজে লোকেরা লুটপাট, গরিব-দুঃখী মানুষের সম্পত্তি দখলের জন্য এই ছুরির অপব্যবহার করবে। ২০১৭ সালের আগে মুজাফফরনগর দাঙ্গা এবং সাহারানপুর দাঙ্গার অভিযুক্তদের মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে ডেকে সম্মানিত করা হত। ২০১৭ সালের পরে মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে কৃষকদের সম্মানিত করা হয় এবং মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে গুরুবাণী পাঠ করা হয়।’

বন্ধ করুন