বৃহস্পতিবার রাতে গণপিটুনির পর রাস্তার ওপর পড়ে রয়েছে সন্ন্যাসীদের গাড়ি।
বৃহস্পতিবার রাতে গণপিটুনির পর রাস্তার ওপর পড়ে রয়েছে সন্ন্যাসীদের গাড়ি।

পালঘরে আক্রান্ত ও আক্রমণকারীরা একই সম্প্রদায়ের, মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • তিনি লেখেন, ‘এই ঘটনা নিয়ে যারা সমাজে বিভাজন তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে তাদের ওপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে।'

মহারাষ্ট্রের পালঘরে ২ সন্ন্যাসীকে পিটিয়ে মারার ঘটনাকে সাম্প্রদায়িক রং দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে বলে জানালেন সেরাজ্যের জোট সরকারের পুলিশমন্ত্রী তথা NCP নেতা অনিল দেশমুখ। সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, যারা একাজ করছে তাদের ওপর কড়া নজর রাখছে মহারাষ্ট্র সাইবার সেল।

মহারাষ্ট্রের শিবসেনা-এনসিপি-কংগ্রেস জোট সরকারের পুলিশমন্ত্রী অনিল দেশমুখ রবিবার টুইটারে লিখেছেন, ‘পালঘরে হামলাকারী ও আক্রান্তরা একই সম্প্রদায়ের।’

এর পর তিনি লেখেন, ‘এই ঘটনা নিয়ে যারা সমাজে বিভাজন তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে তাদের ওপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে। মহারাষ্ট্র সাইবার সেলকে আমি নজরদারির নির্দেশ দিয়েছি। উসকানি দিলে যে কারও বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হবে।’ সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, আইন শৃঙ্খলার সঙ্গে কোনও আপস করবে না রাজ্য সরকার।

এদিন তিনি আরও লেখেন, ‘ঘটনায় ১০১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সন্ন্যাসীদের পিটিয়ে মারার ঘটনার উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে সরকার।’

গত বৃহস্পতিবার রাতে মহারাষ্ট্রে পালঘর জেলায় ছেলেধরা গুজবে পালঘর জেলার গড়চিঞ্চলে গ্রামে ২ সন্ন্যাসীকে গাড়ি থেকে টেনে হিঁচড়ে বার করে লাঠি ও ইট দিয়ে পিটিয়ে মারে প্রায় শ’খানেক গ্রামবাসী। ঘটনায় দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে যাবতীয় পদক্ষেপ করা হবে বলে জানিয়েছেন সেরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে।



বন্ধ করুন