বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নজরে ২০২৪, উত্তর-পূর্বে তৃণমূলের তুরুপের তাস সাংমা, কষা হচ্ছে সম্প্রসারণের অঙ্ক
মুকুল সাংমা। ফাইল ছবি।
মুকুল সাংমা। ফাইল ছবি।

নজরে ২০২৪, উত্তর-পূর্বে তৃণমূলের তুরুপের তাস সাংমা, কষা হচ্ছে সম্প্রসারণের অঙ্ক

  • ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগেই উত্তর-পূর্ব জুড়ে তাদের রাজনৈতিক ভিত্তি প্রসারিত করতে চলছে তৃণমূল।

২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে উত্তর-পূর্ব ভারতে সম্প্রসারণ করবে তৃণমূল কংগ্রেস। এমনই জানালেন মেঘালয়ার তৃণমূল নেতা মুকুল সাংমা। সাংমা জানান যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগেই উত্তর-পূর্ব জুড়ে তাদের রাজনৈতিক ভিত্তি প্রসারিত করতে চলছে।

মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সম্প্রতি কংগ্রেসের অন্য ১১ জন কংগ্রেস বিধায়ককে সঙ্গে নিয়ে তৃণমূলে যোগ দেন। এই আবহে সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে একটি সাক্ষাত্কারে সাংমা দাবি করেন যে তাঁর দলবদলের জেরে পুরো অঞ্চলের রাজনৈতিক পরিস্থিতি বদলে যাবে।

সাংমা বলেন, ‘আমি এই অঞ্চলের অন্যান্য রাজ্যের নেতাদের সঙ্গেও আলোচনা করছি। আমরা যে রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি তার পর তারা আমাকে ডাকছে। এটার মানে তারা সবাই তাদের নিজ নিজ রাজ্যে নতুন কিছু খুঁজছে।’

মেঘালয়ার ছয় বারের বিধায়ক জানান যে বিধানসভার প্রাক্তন স্পিকার চার্লস পিংগ্রোপ তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি হতে পারেন। সাংমা নিজে বিধানসভায় দলের নেতা হিসাবে সরকারের মোকাবিলা করবেন। পাশাপাশি অন্যান্য প্রতিবেশী রাজ্যে দল সম্প্রসারণের দিকে মনোনিবেশ করবেন। 

সাংমা বলেন, ‘খেলায় একটি নতুন দল থাকলে সবসময়ই ভালো, কারণ এটি মানুষের মধ্যে নতুন আগ্রহ তৈরি করে। কেউ যখন একটি রাজনৈতিক সংগঠনের সাথে নিজেকে যুক্ত করে তখন নির্দিষ্ট কোনও উদ্দেশ্য থাকে তাঁর। রাজ্যের তৃণমূল নেতৃত্ব নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গি এবং দায়িত্ব নিয়ে সর্বসম্মত।’ মুকুল সাংমা আরও বলেন, ‘রাজনীতি একটি কঠিন কাজ। আপনি যখন একজন রাজনীতিবিদ হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, তখন আপনি নিজের উপর নিজেই দায়িত্ব দেন যাতে সব স্তরে আপনি নিজের গ্রহণযোগ্যতা তৈরি করতে পারেন। আমি আমার মানুষদের বিশ্বাস করি। আমি তাদের চিনি। আমার বিশ্বাস এবং আত্মবিশ্বাস আমাকে শক্তি দেয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্রামের সময় নেই। ২০২২ মেঘালয় বিধানসভা নির্বাচন এবং ২০২৪ লোকসভা নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

বন্ধ করুন