বাংলা নিউজ > ছবিঘর > PM Cares আরটিআই-এর আওতায় আনা যাবে না: হাইকোর্টে জানাল কেন্দ্র

PM Cares আরটিআই-এর আওতায় আনা যাবে না: হাইকোর্টে জানাল কেন্দ্র

  • পিটিশনে পিএম কেয়ার্সকে একটি 'পাবলিক অথরিটি' হিসেবে আরটিআই-এর আওতায় আনার দাবি করা হয়।
PM Care-কে তথ্য জানার অধিকারের আওতায় আনা যাবে না। এটি 'রাষ্ট্র'(State) হিসাবেও বিবেচনা করা যাবে না। দিল্লি হাইকোর্টে এমনটাই জানাল কেন্দ্রীয় সরকার। ফাইল ছবি : এএনআই (ANI)
1/8PM Care-কে তথ্য জানার অধিকারের আওতায় আনা যাবে না। এটি 'রাষ্ট্র'(State) হিসাবেও বিবেচনা করা যাবে না। দিল্লি হাইকোর্টে এমনটাই জানাল কেন্দ্রীয় সরকার। ফাইল ছবি : এএনআই (ANI)
জরুরি অবস্থার তহবিলে পিএম কেয়ার্স-এর আইনি অবস্থা জানতে চেয়ে হাইকোর্টে এক জনস্বার্থে পিটিশন করা হয়। তার প্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতি ডি এন প্যাটেল এবং জ্যোতি সিংয়ের একটি বেঞ্চকে এই হলফনামা দেয় কেন্দ্র। ফাইল ছবি : এএনআই (ANI/PIB)
2/8জরুরি অবস্থার তহবিলে পিএম কেয়ার্স-এর আইনি অবস্থা জানতে চেয়ে হাইকোর্টে এক জনস্বার্থে পিটিশন করা হয়। তার প্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতি ডি এন প্যাটেল এবং জ্যোতি সিংয়ের একটি বেঞ্চকে এই হলফনামা দেয় কেন্দ্র। ফাইল ছবি : এএনআই (ANI/PIB)
হলফনামায় বলা হয়, তহবিলটি একটি পাবলিক চ্যারিটেবল ট্রাস্ট হিসাবে গঠন করা হয়েছিল। ভারতের সংবিধান দ্বারা বা এর অধীনে তৈরি করা হয়নি। পার্লামেন্ট বা কোনও রাজ্যের বিধানসভার কোন আইন দ্বারা এটি স্থাপিত নয়। ফাইল ছবি : এএনআই (ANI)
3/8হলফনামায় বলা হয়, তহবিলটি একটি পাবলিক চ্যারিটেবল ট্রাস্ট হিসাবে গঠন করা হয়েছিল। ভারতের সংবিধান দ্বারা বা এর অধীনে তৈরি করা হয়নি। পার্লামেন্ট বা কোনও রাজ্যের বিধানসভার কোন আইন দ্বারা এটি স্থাপিত নয়। ফাইল ছবি : এএনআই (ANI)
আবেদনকারীর পক্ষের আইনজীবী সম্যক গাঙ্গওয়ালের পিটিশনে পিএম কেয়ার্সকে একটি 'পাবলিক অথরিটি' হিসেবে আরটিআই-এর আওতায় আনার দাবি করা হয়। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)
4/8আবেদনকারীর পক্ষের আইনজীবী সম্যক গাঙ্গওয়ালের পিটিশনে পিএম কেয়ার্সকে একটি 'পাবলিক অথরিটি' হিসেবে আরটিআই-এর আওতায় আনার দাবি করা হয়। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)
কেন্দ্র জানায়, 'পিএম কেয়ার্স সম্পূর্ণভাবে স্বেচ্ছায় প্রদত্ত অনুদানের উপর ভিত্তি করে গঠিত। এটি কোনও ব্যবসা বা কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্পের অংশ নয়। এটি একটি পাবলিক ট্রাস্ট। তাই কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার অডিটের আওতাধীন নয়।' ফাইল ছবি : এএনআই (ANI/PIB)
5/8কেন্দ্র জানায়, 'পিএম কেয়ার্স সম্পূর্ণভাবে স্বেচ্ছায় প্রদত্ত অনুদানের উপর ভিত্তি করে গঠিত। এটি কোনও ব্যবসা বা কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্পের অংশ নয়। এটি একটি পাবলিক ট্রাস্ট। তাই কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল অফ ইন্ডিয়ার অডিটের আওতাধীন নয়।' ফাইল ছবি : এএনআই (ANI/PIB)
হলফনামায় আরও বলা হয়, 'প্রতিটি অনুদান অনলাইনে, চেক, ডিমান্ড ড্রাফ্ট ইত্যাদির মাধ্যমে দেওয়া। গৃহিত অনুদানের পরিমাণ এবং ব্যয় তার ওয়েবসাইটেই দেওয়া আছে।' ফাইল ছবি : এএনআই (ANI)
6/8হলফনামায় আরও বলা হয়, 'প্রতিটি অনুদান অনলাইনে, চেক, ডিমান্ড ড্রাফ্ট ইত্যাদির মাধ্যমে দেওয়া। গৃহিত অনুদানের পরিমাণ এবং ব্যয় তার ওয়েবসাইটেই দেওয়া আছে।' ফাইল ছবি : এএনআই (ANI)
গত ২০২০ সালে ২৭ মার্চ কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে দেশবাসীর সাহায্যার্থে পিএম কেয়ার্সে তহবিল সংগ্রহের ডাক দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিশ্বজুড়ে বহু সংস্থা, ব্যক্তি এতে কোটি কোটি টাকার অনুদান দেন। তবে এর পাশাপাশি এর স্বচ্ছতা ও আইনি অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সমাজকর্মী, আইনজীবী ও বিরোধী রাজনৈতির দলগুলি। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)
7/8গত ২০২০ সালে ২৭ মার্চ কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে দেশবাসীর সাহায্যার্থে পিএম কেয়ার্সে তহবিল সংগ্রহের ডাক দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিশ্বজুড়ে বহু সংস্থা, ব্যক্তি এতে কোটি কোটি টাকার অনুদান দেন। তবে এর পাশাপাশি এর স্বচ্ছতা ও আইনি অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সমাজকর্মী, আইনজীবী ও বিরোধী রাজনৈতির দলগুলি। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)
এ বিষয়ে আবার আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর শুনানি হবে। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)
8/8এ বিষয়ে আবার আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর শুনানি হবে। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)
অন্য গ্যালারিগুলি