বাংলা নিউজ > ময়দান > BBL 11: অভিষেকেই ম্যাচ জিতিয়ে নায়ক হওয়ার সুযোগ ছিল, ছক্কা মারতে গিয়ে আউট উন্মুক্ত চাঁদ: ভিডিয়ো
উন্মুক্ত চাঁদ। ছবি- মেলবোর্ন রেনেগেডস।

BBL 11: অভিষেকেই ম্যাচ জিতিয়ে নায়ক হওয়ার সুযোগ ছিল, ছক্কা মারতে গিয়ে আউট উন্মুক্ত চাঁদ: ভিডিয়ো

  • ফিঞ্চের অধিনায়কোচিত হাফ-সেঞ্চুরি সত্ত্বেও হারতে হল মেলবোর্নকে।

প্রথম ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে ছেলেদের বিগ ব্যাশ লিগে মাঠে নেমে ইতিহাস গড়লেন উন্মুক্ত চাঁদ। যদিও দলকে ম্যাচ জেতাতে পারলেন না তিনি। সুযোগ ছিল নায়ক হয়ে মাঠ ছাড়ার। তবে কেরিয়ারের প্রথম বিগ ব্যাশ ম্যাচে ব্যাট হাতে নজর কাড়তে ব্যর্থ হন ভারতীয় তারকা।

উন্মুক্ত যখন মাঠে নামেন, তখন মেলবোর্ন রেনেগেডসের স্কোর ১৪.৫ ওভারে ২ উইকেটে ১৩৮। জয়ের জন্য তাদের দরকার ছিল ৩১ বলে ৪৫ রান। এমন কিছু কঠিন টার্গেট ছিল না। তার উপর অপর প্রান্তে ব্যাট করছিলেন সেট হয়ে যাওয়া অ্যারন ফিঞ্চ।

যদিও চার নম্বরে ব্যাট করতে নেমে উন্মুক্ত শেষমেশ ৮ বলে ৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন। কোনও বাউন্ডারি মারতে পারেননি তিনি। সন্দীপ লামিছানের বলে স্লগ স্যুইপে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে বাউন্ডারি লাইনে জেওয়েলের হাতে ধরা পড়েন উন্মুক্ত। অ্যারন ফিঞ্চের অধিনায়কোচিত হাফ-সেঞ্চুরি সত্ত্বেও মেলবোর্ন রেনেগেডস ম্যাচ হারে ৬ রানের সংক্ষিপ্ত ব্যবধানে।

প্রথমে ব্যাট করে হবার্ট হ্যারিকেনস নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ১৮২ রান তোলে। ম্যাথিউ ওয়েড ৪৮, ডার্সি শর্ট ৩৭ ও জেওয়েল ৩৫ রান করেন। টিম ডেভিড ২০ বলে ৪৬ রান করে অপরাজিত থাকেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে মেলবোর্ন ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৬ রানে আটকে যায়। ফিঞ্চ ৫২ বলে ৭৫ রানের আগ্রাসী ইনিংস খেলেন। ৫১ রান করেন শন মার্শ। রজার্স ৩টি ও লামিছানে ২টি উইকেট নেন। দল হারলেও ম্যাচের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জিতেছেন রেনেগেডস দলনায়ক ফিঞ্চ।

বন্ধ করুন