করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামিল লাল-হলুদ শিবির। ছবি- মিন্ট প্রিন্ট।
করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামিল লাল-হলুদ শিবির। ছবি- মিন্ট প্রিন্ট।

মোহনবাগানের পর করোনার জালে বল জড়াতে মাঠে নামল ইস্টবেঙ্গল

  • দিন দু'য়েকের মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে অনুদানের টাকা তুলে দেওয়া হবে।

করোনা মোকাবিলায় সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে আগেই উদ্যোগী হয়েছিল মোহনবাগান। এবার মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে রাজ্য সরকারের হাত শক্ত করার সিদ্ধান্ত নিল ইস্টবেঙ্গল।

আই লিগ চ্যাম্পিয়ন মোহনবাগান মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ইতিমধ্যেই ২০ লক্ষ টাকা অনুদানের কথা ঘোষণা করেছে। সোমবার লাল-হলুদ শিবির জানিয়ে দেয়, তারা অন্তত পক্ষে ৩০ লক্ষ টাকা রাজ্য সরকারের আপৎকালীন তহবিলে জমা দেবে।

ইস্টবেঙ্গল কর্তা দেবব্রত সরকার জানান যে, তাঁরা ৩০ লক্ষ টাকা ইতিমধ্যেই একজোট করেছেন। তবে তাঁদের লক্ষ্য রয়েছে আরও কিছু টাকা সংগ্রহ করার। সব মিলিয়ে ৩৫ লক্ষ টাকা সরকারের তহবিলে জমা দেওয়ার ইচ্ছা রয়েছে তাঁদের। দিন দু'য়েকের মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে অনুদানের টাকা তুলে দেওয়া হবে।

ময়দানের দুই প্রধান ছাড়া সিএবি ২৫ লক্ষ টাকা দিয়েছে সরকারি তহবিলে। সঙ্গে আরও বেশ কিছু টাকা অনুমোদিত সংস্থা ও কর্মীদের থেকে সংগ্রহ করেছে বাংলার ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। সিএবি কর্তারা ব্যক্তিগতভাবেও সরকারি তহবিলে অর্থ যোগান দিয়েছেন।

বাংলার হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলা ভারতীয় মহিলা দলের তারকা অল-রাউন্ডার দীপ্তি শর্মা এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনি ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশের সরকারি তহবিল ও প্রধামন্ত্রীর তহবিলেও অনুদান দিয়েছেন।

বন্ধ করুন