বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > এমবাপে ঝড়- একাই করলেন ৫ গোল, মেসিকে ছাড়াই French Cup-এ দাপট, ৭ গোল PSG-র

এমবাপে ঝড়- একাই করলেন ৫ গোল, মেসিকে ছাড়াই French Cup-এ দাপট, ৭ গোল PSG-র

কিলিয়ান এমবাপে। ছবি: রয়টার্স

পিএসজির ইতিহাসে এই প্রথম কেউ এক ম্যাচে ৫ গোল করলেন। এ দিকে প্যারিসের ক্লাবটির হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার দৌড়ে অল্প পিছিয়ে ২৪ বছরের ফরাসি স্ট্রাইকার। এখনও পর্যন্ত পিএসজি-র হয়ে সবচেয়ে বেশি ২০০ গোল করেছেন এদিনসন কাভানি। উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ডকে ছুঁতে আর মাত্র ৪ গোল দরকার এমবাপের।

বিশ্বকাপ থেকেই দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন কিলিয়ান এমবাপে। তবে ফ্রান্সকে চ্যাম্পিয়ন করতে না পারার আফসোসটা তাঁর ষোল আনা রয়েই গিয়েছে। আর সেটাই সম্ভবত আগুন হয়ে ঝরে পড়ছে মাঠে। ফ্রেঞ্চ কাপে পেস ডি ক্যাসেলের বিরুদ্ধে যেমন ঝড় তুললেন এমবাপে। শুধু হ্যাটট্রিকই করলেন না, পাঁচ গোল করে ফেললেন ফরাসি তারকা। ফ্রেঞ্চ কাপের রাউন্ড ৩২-এর ম্যাচটি পিএসজি জিতল ৭-০ গোলে।

লিওনেল মেসিকে এই ম্যাচে দলে রাখা হয়নি। যা নিয়ে শুরু হয়ে যায় জল্পনা। পিএসজি-র সঙ্গে মেসির সম্পর্ক কি তলানিতে এসে ঠেকেছে? মেসি কি পিএসজি ছাড়ছেন? এমন হাজারো প্রশ্নের মাঝে এমবাপের ঝড়ে ছত্রখান হল পেস ডি ক্যাসেল।

আসলে পেস ডি ক্যাসেলে দলটি খেলে ফরাসি লিগের ষষ্ঠ স্তরে। এমন দলের বিপক্ষে প্রায় পুরো শক্তির দলই নামিয়ে দিয়েছিলেন পিএসজি কোচ ক্রিস্তফ গালতিয়ের। এর পর যেমনটি হওয়ার, তাই হয়েছে। পেস ডি ক্যাসেলের বিপক্ষে বড় জয় ছিনিয়ে নিয়েছে পিএসজি। এমবাপের ৫ গোল ছাড়াও, গোল করেছেন নেইমারও। কার্লোস সোলারও করেছেন ১ গোল।

আরও পড়ুন: অধরা থাকল টানা ২ বার বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন,আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় জানালেন লরিস

পেস ডি ক্যাসেলের নিজস্ব বড় মাঠ নেই। ম্যাচ আয়োজন করা হয় লিগ ওয়ানের ক্লাব লাসের বোলায়ের্ট-দেলেলিস স্টেডিয়ামে। পিএসজি কোচ লিওনেল মেসিকে বিশ্রামে রেখে প্রায় পুরো শক্তির দল মাঠে নামিয়ে দেন। তবু দুর্বল পেস ডি ক্যাসেলের বিরুদ্ধে প্রথম গোল পেতে প্রায় আধঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়। এর আগে ট্যাকল করে হলুদ কার্ডও দেখে ফেলেছিলেন নেইমার।

২৯তম মিনিটে পিএসজিকে প্রথম গোলটি এনে দেন এমবাপে। নুনো মেন্ডেজের ক্রস থেকে পাওয়া বল সহজেই জালে জড়ান ফরাসি তারকা। এই যে গোলের মুখ এক বার খুলে যায়, এর পরেই ঝড় ওঠে। চার মিনিট বাদেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার। পর পর দুই গোল হজমের পর পেস ডি ক্যাসেলের রক্ষণ একেবারে দিশেহারা হয়ে পড়ে। ৩৪ ও ৪০ মিনিটে আরও দুই গোল করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন এমবাপে। এই নিয়ে এমবাপে গত দু'মাসে দু'টি হ্যাটট্রিক করে ফেললেন। আগের হ্যাটট্রিকটি করেছেন বিশ্বকাপ ফাইনালে আর্জেন্তিনার বিপক্ষে।

আরও পড়ুন: জল্পনার অবসান, ফ্রান্স ফুটবল টিমের হটসিটে থাকছেন দেশঁই, ২০২৬ পর্যন্ত চুক্তি

প্রথমার্ধে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পর, দ্বিতীয়ার্ধেও আক্রমণের ধার কমেনি পিএসজি-র। ৫৬ ও ৭৯ মিনিটে আরও দুই গোল করে রেকর্ড বইয়ে নাম লেখান এমবাপে। পিএসজির ইতিহাসে এই প্রথম কেউ এক ম্যাচে ৫ গোল করলেন। এ দিকে প্যারিসের ক্লাবটির হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার দৌড়ে অল্প পিছিয়ে ২৪ বছরের ফরাসি স্ট্রাইকার। এখনও পর্যন্ত পিএসজি-র হয়ে সবচেয়ে বেশি ২০০ গোল করেছেন এদিনসন কাভানি। উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ডকে ছুঁতে আর মাত্র ৪ গোল দরকার এমবাপের।

দ্বিতীয়ার্ধে এমবাপের দুই গোলের মাঝে ৬০তম মিনিটে আরও একটি গোল করেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার কার্লোস সোলের। বড় জয়ের পর অবশ্য কোয়ার্টারে ওঠার লড়াইয়ে সহজ প্রতিপক্ষ পাচ্ছে না পিএসজি। শেষ ষোলোয় এমবাপেদের প্রতিপক্ষ অলিম্পিক মার্শেই।

বন্ধ করুন