বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > Umran Malik: উমরানের সাফল্যের বিষয়ে অজ্ঞাত বাবা! ছেলে কত জনপ্রিয়, বুঝলেন সবজি বিক্রি করার সময়
উমরান মালিক (IPL Twitter)
উমরান মালিক (IPL Twitter)

Umran Malik: উমরানের সাফল্যের বিষয়ে অজ্ঞাত বাবা! ছেলে কত জনপ্রিয়, বুঝলেন সবজি বিক্রি করার সময়

  • পঞ্জাব কিংসের বিরুদ্ধে শেষ ওভারে কোনও রান না দিয়ে উমরান যখন তিন উইকেট নেন, তখন গরমে ঘামতে ঘামতে জম্মুতে ফল ও সবজি বিক্রি করছিলেন তাঁর বাবা আবদুল রশিদ।

জম্মুতে এক গরম বিকেলে আবদুল রশিদ তখন সবজি ও ফল বিক্রি করছেন। আচমকা কয়েকজন এসে উমরান মালিকের বাবাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে গেলেন। কারণ সেই সময় জম্মু থেকে প্রায় ২০০০ কিমি দূরে আইপিএল-এর ম্যাচে উমরান স্বপ্নের ওভার করে গোটা দেশকে স্তম্ভিত করে দিয়েছেন। তাঁর সেই ওভার চলাকালীন ফল ও সবজি বিক্রিতে ব্যস্ত ছিলেন আবদুল। ছেলের খেলা দেখার সময় তাঁর কাছে তখন ছিল না। তবে যখন অনেকে এসে তাঁকে অভিনন্দন জানাতে থাকেন, তখন তিনি বুঝতে পারেন যে তাঁর ছেলে কতটা জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন।

পঞ্জাব কিংসের বিরুদ্ধে শেষ ওভারে কোনও রান না দিয়ে উমরান যখন তিন উইকেট নেন, তখন গরমে ঘামতে ঘামতে জম্মুতে নিজের কাজ করছিলেন উমরানের বাবা। তবে ছেলের ‘কীর্তি’র কথা জানতে পেরে গর্বে বুক চওড়া হয়েছিল তাঁর। ম্যাচের পর উমরান বাবাকে ফোন করেন। ফোনে উমরান কিছু বলার আগেই ছেলেকে আবদুল বলেন, ‘তুমি আমাকে আজকে গর্বিত করেছ।’ উমরানের বাবা জানান, তিনি চান যাতে তাঁর ছেলে ভারতীয় জার্সিতে বিশ্বকাপ খেলেন। পাশাপাশি তিনি আবদুল সামাদের কাছেও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি জানান, আবুদলই উমরানকে নিয়ে গিয়েছিলেন ইরফান পাঠানের কাছে। তিনি বলেন, ‘উমরানের জীবনে ইরফান স্যারের ভূমিকা অনেকটা। আমার মনে আছে, ইরফান প্রথমবার উমরানকে দেখে বলেছিলেন যে তাঁর ওয়াকার ইউনিসের কথা মনে পড়ে যাচ্ছে।’

উল্লেখ্য, গতবছর আইপিএলে গুটিকয়েক ম্যাচ খেলেই হায়দরাবাদ সানরাইডার্সের ম্যানেজমেন্টের মন জয় করেছিলেন। ৪ কোটি টাকা দিয়ে তাঁকে রিটেনও করা হয়েছিল। এবছর শুরুটা সেভাবে ভালো না হলেও তাঁর গতিতে মুগ্ধ সবাই। শেষ পর্যন্ত পঞ্জাব কিংসের বিরুদ্ধে নিজের জাত চেনান উমরান। আর তারপরই কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে যে ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে সুযোগ দেওয়া হতে পারে উমরান মালিককে। ধারাবাহিক ভাবে ১৫০ কিমি প্রতি ঘণ্টা বেগে বোলারকে নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট মহলে যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে, তা স্পষ্ট। এই আবহে জুন মাসেই উমরানকে ভারতীয় জার্সিতে দেখা যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। জুন মাসে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে মোট ৭টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচ খেলার কথা ভারতে। দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে সিনিয়রদের বিশ্রাম দেওয়ার কথা উঠে এসেছে ইতিমধ্যেই। এই আবহে উমরানের দলে সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। আর সুযোগ পেয়ে যদি উমরান ভালো খেলতে পারেন, তাহলে তাঁর জন্য খুলে যেতে পারে টি-২০ বিশ্বকাপের দরজাও।

বন্ধ করুন