বাংলা নিউজ > ময়দান > ধোনির নির্বাচন নিয়ে অজানা কাহিনী শোনালেন প্রাক্তন নির্বাচক প্রধান কিরণ মোরে
মহেন্দ্র সিং ধোনি। ছবি- গেটি ইমেজেস।
মহেন্দ্র সিং ধোনি। ছবি- গেটি ইমেজেস।

ধোনির নির্বাচন নিয়ে অজানা কাহিনী শোনালেন প্রাক্তন নির্বাচক প্রধান কিরণ মোরে

  • ২০০৪ সালে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে একদিনের ম্যাচে ধোনির জাতীয় দলে অভিষেক হয়‌।

শুভব্রত মুখার্জি

জাতীয় দলের হয়ে তিনি শেষবার খেলেছিলেন ২০১৯ সালের বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনালে। তারপর ২০২০ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মঞ্চকে আলবিদা জানান মহেন্দ্র সিং ধোনি। আইপিএলে আমিরশাহিতে ব্যক্তিগতভাবে তিনি বা তাঁর দল চেন্নাই সুপার কিংস কেউ ভালো পারফরম্যান্স করতে পারেননি। তবে জাতীয় দলের হয়ে না খেললেও ধোনির বিষয়ে তাঁর ভক্তদের ভালবাসায় একটুও ভাটা পড়েনি। তাঁর বিষয়ে কোনও খবর পেতে এখন ও মুখিয়ে থাকেন সমর্থকরা।

এবার ভারতের অন্যতম সফল অধিনায়ক তথা প্রাক্তন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া সম্বন্ধে এক অজানা কাহিনী সর্বসমক্ষে তুলে ধরলেন ভারতের প্রাক্তন নির্বাচক প্রধান কিরণ মোরে। ২০০৪ সালে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে একদিনের ম্যাচের মধ্যে দিয়ে ধোনির জাতীয় দলে অভিষেক হয়‌। সেই ম্যাচে শূন্য করে রান আউট হয়েছিলেন পরবর্তীতে ভারতের হয়ে ১৫ হাজারের বেশি আন্তর্জাতিক রান করা তারকা। ধোনির দলে প্রবেশের আগে ভারতের হয়ে একদিনের ম্যাচে উইকেটকিপিং করছিলেন রাহুল দ্রাবিড়। বেশ সাফল্যের সঙ্গে এই কাজটি করেছিলেন তিনি। ৭১টি স্ট্যাম্পিং করা ছাড়া ও ১৩টি ক্যাচ উইকেটরক্ষক হিসেবে ধরেছিলেন তিনি।

তবে সেই সময়টা যেহেতু রাহুল ক্রিকেটার হিসেবে একটা অন্য পর্যায়ে প্রবেশ করেছিলেন তাই নির্বাচকরা চেয়েছিলেন রাহুলের উপর থেকে কিপিংয়ের বোঝা কমাতে যাতে তিনি আরও বেশি করে ব্যাটিংয়ে মনোনিবেশ করতে পারেন।

এই সম্বন্ধে বলতে গিয়ে ডব্লু ভি রামনের পডকাস্ট 'ইনসাইড আউটে' মোরে বলেন, 'রাহুলের উইকেট রক্ষক হিসেবে ৭৫টি একদিনের ম্যাচ খেলা হয়ে গেছিল। আমরা এমন একজনকে চাইছিলাম যে জোরে বলটা মারতে পারবে এবং উইকেটকিপিংয়ের দায়িত্বটা নিয়ে রাহুলের উপর থেকে বোঝাটা কমাতে পারবে। আমরা ধোনিকে কেনিয়ার বিরুদ্ধে ভারতীয়-এ দলে সুযোগ দিই। ও ওই সফরে বেশ ভালো খেলে ৬০০-র উপর রান করে। এর পরেই ধোনিকে জাতীয় দলে সুযোগ দেওয়া হয়। ভারতীয় ক্রিকেটে একটা ঝড়ের নাম মহেন্দ্র সিং ধোনি। ও একটা সম্পূর্ণ প্যাকেজ।'

বন্ধ করুন