বাংলা নিউজ > ময়দান > টোকিও অলিম্পিক্স > অলিম্পিক্সের রঙে সেজেছে হাওড়া ব্রিজ, মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী শেয়ার করলেন ভিডিও
অলিম্পিক্সের রঙে সেজেছে হাওড়া ব্রিজ।
অলিম্পিক্সের রঙে সেজেছে হাওড়া ব্রিজ।

অলিম্পিক্সের রঙে সেজেছে হাওড়া ব্রিজ, মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী শেয়ার করলেন ভিডিও

  • ভারতীয় অ্যাথলিটরা যখন সুদূর টোকিও-তে লড়াই চালাবেন, তখন তাঁদের এ ভাবেই অনুপ্রাণিত করবে কলকাতা। হাওড়া ব্রিজের আলোকসজ্জার মধ্যে দিয়েই। হাওড়া ব্রিজের এই আলোকসজ্জা দেখে মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও।

টোকিও অলিম্পিক্সের জন্যই নতুন আলোকসজ্জায় সাজিয়ে তোলা হয়েছে হাওড়া ব্রিজকে। বিভিন্ন সময়ে ব্রিজে ভেসে উঠছে, অলিম্পিক্সের সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন প্রতীক। কখনও জাপানের জাতীয় পতাকা, কখনও অলিম্পিক্সে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর বিভিন্ন প্রতীক, কখনও বা অলিম্পিক্সের সিম্বল। দেখে মনে হচ্ছিল, রাতের কলকাতাতেই যেন অলিম্পিক্সের আসর বসেছে।

ভারতীয় অ্যাথলিটরা যখন সুদূর টোকিও-তে লড়াই চালাবেন, তখন তাঁদের এ ভাবেই অনুপ্রাণিত করবে কলকাতা। হাওড়া ব্রিজের আলোকসজ্জার মধ্যে দিয়েই। হাওড়া ব্রিজের এই আলোকসজ্জা দেখে মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। তিনি ফেসবুকে এই ব্রিজের আলোকসজ্জার ভিডিও শেয়ার করে লিখেছেন, ‘কলকাতার হাওড়া ব্রিজকে যেমন সুন্দর লাগে, তেমনই সুন্দর লাগছে। সেই সঙ্গে গোটা দেশের জন্য চিয়ার ফর ইন্ডিয়ার মেসেজ প্রেরণ করছে।’  

ভারতীয় অ্যাথলিটদের উৎসাহ দিতে ব্রিজের আলোকসজ্জায় আলাদা করে তেরঙ্গাও দেখতে পাওয়া যাবে। এর আগেও বিভিন্ন সময়ে হাওড়া ব্রিজ বিভিন্ন কারণে নতুন নতুন আলোকসজ্জায় সেজে উঠেছে। স্বাধীনতা দিবস, প্রজাতন্ত্র দিবস বা বিভিন্ন উৎসবের সময় যেমন, দুর্গাপুজো, দেওয়ালি, অথবা হোলিতেও এই ব্রিজকে সাজিয়ে তোলা হয়।টেকনিক্যালি এই আলোকসজ্জাকে বলা হয়ে থাকে, ‘ডায়নামিক আর্কিটেকচার অফ লাইটিং’।

বন্দর চেয়ারম্যান বিনীত কুমার জানিয়েছেন, ‘টোকিও অলিম্পিক্স গত বছর হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কোভিডের জন্য এক বছর পিছিয়ে যায় গেমস। এখন আবার গেমস হবে। আর এতে যে পাঁচটি মহাদেশের প্রতিযোগীরা অংশ নেবেন, সেটার কথা মাথায় রেখেই, আমরা বিভিন্ন মহাদেশের প্রতীককে আলোকসজ্জার মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। এছাড়াও আয়োজক দেশ হিসেবে জাপানের জাতীয় পতাকা থেকে শুরু করে সবকিছু আলাদা ভাবে তুলে ধরতে চেয়েছি।’

বন্ধ করুন