বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > পিতৃপক্ষে কেনাকাটা করা শুভ না অশুভ? জেনে নিন কী বলছে শাস্ত্র
পিতৃপক্ষের সময় পূর্বপুরুষরা পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে আসেন এবং তাদের সুখ-সমৃদ্ধির আশীর্বাদ দেন।
পিতৃপক্ষের সময় পূর্বপুরুষরা পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে আসেন এবং তাদের সুখ-সমৃদ্ধির আশীর্বাদ দেন।

পিতৃপক্ষে কেনাকাটা করা শুভ না অশুভ? জেনে নিন কী বলছে শাস্ত্র

  • এটি শোকের সময়কাল বলে কোনও কিছু কেনাকাটা করতে নেই। তবে শাস্ত্রে এমন কোনও উল্লেখ পাওয়া যায় না।

পিতৃপক্ষে পূর্বপুরুষদের শ্রাদ্ধকর্ম করা হয়। ৬ অক্টোবর, বুধবার পিতৃপক্ষ শেষ হচ্ছে। মনে করা হয় এ সময় পূর্বপুরুষরা মর্ত্যলোকে আসেন। এটি শোকের সময়কাল বলে কোনও কিছু কেনাকাটা করতে নেই। তবে শাস্ত্রে এমন কোনও উল্লেখ পাওয়া যায় না। অর্থাৎ শাস্ত্র মতে, পিতৃপক্ষকে অশুভ মনে করা হয় না। তবে এ বার পিতৃপক্ষে একাধিক শুভযোগ সৃষ্টি হচ্ছে। এই যোগে তর্পণ ও পিণ্ডদান করলে পিতৃ দোষ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এমনকি এ সময় কেনকাটা ও শুভ কাজ করলে তা বিশেষ ফলদায়ী হয়। তবে এই পক্ষে বিবাহ করতে নেই।

প্রচলিত আছে যে, পিতৃপক্ষে কোনও কিছু কিনলে, সেই বস্তু পিতৃপুরুষদের সমর্পিত হয়, যা পরে কখনও ব্যবহার করা উচিত নয়। কারণ এই সমস্ত বস্তুকে প্রেতের অংশ মনে করা হয়। এর ফলে কেনা বস্তু পিতৃপক্ষের পর ব্যবহার করা উচিত নয় বলে মনে করা হয়। কিন্তু পিতৃপক্ষকে অশুভ মনে করা উচিত নয়। কারণ গণেশ চতুর্থী ও দুর্গাপুজোর মাঝে পিতৃপক্ষ আসে। শাস্ত্র মতে, কোনও শুভ কাজ করার আগে গণেশ পুজো করা হয়। এ দিক দিয়ে দেখলে পিতৃপক্ষ অশুভ কাল নয়।

পিতৃপক্ষের সময় পূর্বপুরুষরা পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে আসেন এবং তাদের সুখ-সমৃদ্ধির আশীর্বাদ দেন। প্রাচীন কাল থেকেই পিতৃপক্ষকে লোক-পরলোকের মধ্যে আত্মা ও পরমাত্মার ভারসাম্য বজায় রাখার মাধ্যম হিসেবে বিবেচিত করা হয়। পিতৃপক্ষে নতুন কাজ শুর, কেনাকাটা করলে পূর্বপুরুষরা ক্ষুব্ধ হন না। আবার এ সময় কেনা কোনও বস্তুকে প্রেতের অংশও মনে করা হয় না। বরং পরিবারের সদস্যদের উন্নতি দেখে পূর্বপুরুষরা আনন্দিত হন। সমস্যা তখন দেখা দেয়, যখন ব্যক্তি পূর্বপুরুষদের সম্মান জানাতে ভুলে যান। তাই কোনও কিছু কেনার সময় পূর্বপুরুষদের ধন্যবাদ জানানো উচিত।

২১ সেপ্টেম্বর থেকে পিতৃপক্ষ শুরু হয়েছে। এ সময় নানান শুভ যোগ থাকবে। চলতি বছর পিতৃপক্ষে সর্বার্থ সিদ্ধি যোগ, রবি যোগ, অমৃত সিদ্ধি যোগ সৃষ্টি হয়েছে। এই শুভক্ষণে কেনাকাটা ও লগ্নি করা শুভ। পিতৃপক্ষের ২১, ২৩, ২৪, ২৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ও ৬ অক্টোবর সর্বার্থসিদ্ধি যোগ সৃষ্টি হয়েছে। অন্য দিকে ২৬ ও ২৭ সেপ্টেম্বর রবিযোগ থাকছে, আবার ২৭ ও ৩০ সেপ্টেম্বর অমৃতসিদ্ধি যোগ তৈরি হচ্ছে। এই সময় শুভ কাজ করার জন্য ৭ দিন সময় পাবেন। এর পর থেকে নবরাত্রি শুরু হয়ে যাবে। এই যোগে যে কাজ করা হয়, তাতে কেবল বৃদ্ধি হয়।

শাস্ত্রে পিতৃপুরুষদের দেবতাতুল্য মনে করা হয়। মনে করা হয়, তাঁরা নিজের পরিবারের সদস্যদের উন্নতিতে অত্যন্ত খুশি হন। তাই মনে কোনও দোটানা না-রেখে পিতৃপক্ষে শুভ কাজ শুরু করা যেতে পারে বা কেনাকাটা করা যেতে পারে। এ সময় কোনও অমানবিক, অপরাধপ্রবণ কাজ করতে নেই। 

বন্ধ করুন