ভয় পেলেও মেয়েকে কখনও পিছিয়ে আসতে বলবেন না। দৃঢ় কণ্ঠে জানালেন ঐশীর বাবা-মা। (ছবি সৌজন্য টুইটার @JNUSUofficial)
ভয় পেলেও মেয়েকে কখনও পিছিয়ে আসতে বলবেন না। দৃঢ় কণ্ঠে জানালেন ঐশীর বাবা-মা। (ছবি সৌজন্য টুইটার @JNUSUofficial)

‘ভীত, তবে আন্দোলন থেকে পিছিয়ে আসতে বলব না', বলছেন ঐশীর বাবা-মা

  • ভয় পেলেও মেয়েকে কখনও পিছিয়ে আসতে বলবেন না। দৃঢ় কণ্ঠে জানালেন ঐশীর বাবা-মা।

মাথা দিয়ে রক্ত ঝরছে মেয়ের। চোখেমুখে আতঙ্কের ছাপ। মেয়ের সেই ভিডিয়ো দেখে ঘাবড়ে গেলেও দমতে রাজি নন জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) ছাত্র সংগঠনের সভাপতি ঐশীর বাবা দেবাশিস ঘোষ। বরং দৃঢ় কণ্ঠে জানালেন, ভয় পেলেও মেয়েকে কখনও পিছিয়ে আসতে বলবেন না।

আরও পড়ুন : 'হাতে লাঠি-রড়, মুখোশ পরে ক্যাম্পাসে দাপাচ্ছে দুষ্কৃতীরা', অভিযোগ JNU পড়ুয়াদের

দেবাশিসবাবু বলেন, 'সারা দেশের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। আমরা ভীত। আমার মেয়ের উপর হামলা হয়েছে। কাল অন্য কাউকে মারধর করা হবে। আমায়ও মারধর করা হতে পারে।'

আরও পড়ুন : JNU-তে তাণ্ডব : রক্তাক্ত পড়ুয়া-অধ্যাপক, ভাঙচুর ক্যাম্পাসে

হামলার পর থেকে মেয়ের সঙ্গে কথা হয়নি আর। বন্ধু-বান্ধবদের মারফত খবর পাচ্ছেন। জানতে পেরেছেন, মেয়ের মাথায় পাঁচটি সেলাই পড়েছে। সেজন্য চরম উৎকণ্ঠায় কাটছে প্রতিটা মুহূর্ত। দেবাশিসবাবু বলেন, 'সরাসরি মেয়ের সঙ্গে কথা হয়নি। অন্যরা আমায় অশান্তির বিষয়ে বলেছেন। দীর্ঘদিন ধরেই শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চলছে। ওর মাথায় পাঁচটি সেলাই পড়েছে। আমরা চিন্তিত।'

আর পড়ুন : JNU তাণ্ডব : বিক্ষোভরত পড়ুয়াদের উপর দায় চাপাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ

তবে শুধু জেএনইউ নয়, বিশ্বের সর্বত্রই বাম আন্দোলন বাধার সম্মুখীন হয় বলে দাবি দেবাশিসবাবুর। তাঁর কথায়, 'দেখুন, ঐশী বাম আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত। সর্বত্র ও সবাই বাম আন্দোলন রোখার চেষ্টা করে।'

আর পড়ুন : 'এই JNU-কে আমি চিনি না', বললেন প্রাক্তনী নির্মলা সীতারমন

বাবার মতো মেয়ের শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন ঐশীর মা। সেজন্য অবশ্য মেয়েকে আন্দোলন থেকে সরে আসতে বলবেন না তিনি। তাঁর কথায়, 'এই আন্দোলনে অনেক ছেলেমেয়ে রয়েছে। তাঁরা সবাই আহত। কেউ বেশি, কেউ কম। আমি ওকে কখনও প্রতিবাদ থেকে সরে আসতে বলব না।' পাশাপাশি, উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিও তুলেছেন ঐশীর মা।

আর পড়ুন : যাদবপুর থেকে জামিয়া, JNU তাণ্ডবের প্রতিবাদে সরব পড়ুয়ারা


বন্ধ করুন