বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাবা মায়ের অনুপস্থিতে ৪ বছরের শিশুকে পেন্ডুলামের মতো ঝুলিয়ে রেখে অত্যাচার

বাবা মায়ের অনুপস্থিতে ৪ বছরের শিশুকে পেন্ডুলামের মতো ঝুলিয়ে রেখে অত্যাচার

শিশুকে মারধরের অভিযোগ প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। প্রতীকী ছবি।

‘আমার ছেলেকে এ ভাবে মারধর করত। ছোট্ট শিশুটি কি দোষ করত যে ওকে মারধর করা হত? আমি এর সুবিচার চাই।’

কর্ম ব্যস্ততার জেরে প্রতিবেশীর কাছেই বছর চারেকের এক মাত্র সন্তানকে রেখে যেতেন বাবা-মা। আর সেই সুযোগেই ওই ছোট্ট শিশুর ওপর নৃশংস অত্যাচার চালাতেন প্রতিবেশী। বাড়ির বিভিন্ন কাজ করিয়ে নিতেন। আর না পারলেই করা হত মারধর, আবার ঝুলিয়ে রাখা হত পেন্ডুলামের মতো। গলায় পা দিয়েও করা হত অত্যাচার। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে। তাতেই শিশুর ওপর ওই ব্যক্তিকে এই রকম নির্মম অত্যাচার করতে দেখা গিয়েছে।

অভিযুক্ত যুবকের নাম প্রসেনজিৎ মণ্ডল। তিনি মালদহের বাসিন্দা। জানা যাচ্ছে, মালদার খুটাদহ গ্রামের বাসিন্দা ওই যুবক হায়দরাবাদের রাজীব নগরে ছাদ ঢালাই মিস্ত্রির কাজ করতেন। তিনি যে বাড়িতে থাকতেন সেই বাড়িতেই চার বছরের ওই সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া থাকতেন তারই গ্রামের বাসিন্দা পূর্ণ সরকার। তারা স্বামী ও স্ত্রী দুজনেই কাজ করতেন। তাই একমাত্র শিশুকে প্রতিবেশী এবং নিজের গ্রামের বাসিন্দা প্রসেনজিতের ভরসাতেই রেখে নিশ্চিন্তে কাজে চলে যেতেন। তারা ভাবতেন তাদের সন্তান নিজের গ্রামের যুবকের কাছে ভালোই থাকছে। কিন্তু, সম্প্রতি ওই ভিডিয়ো দেখার পরেই শিউরে ওঠেন ওই দম্পতি।

নেট মাধ্যমে ভিডিয়োটি ভাইরাল হতেই প্রসেনজিৎকে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন নেটিজেনরা। শিশুর বাবা পূর্ণ সরকার জানান, ‘ভিডিয়ো না দেখলে হয়তো কোনওদিন জানতেই পারতাম না যে ও আমার ছেলেকে এ ভাবে মারধর করত। ছোট্ট শিশুটি কি দোষ করত যে ওকে মারধর করা হত? আমি এর সুবিচার চাই।’

বন্ধ করুন