বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দু'কূলই গেল জিতেন্দ্রর, আসানসোলের পুর প্রশাসক হলেন অমনরাথ
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে জিতেন্দ্র তিওয়ারি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে জিতেন্দ্র তিওয়ারি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক)

দু'কূলই গেল জিতেন্দ্রর, আসানসোলের পুর প্রশাসক হলেন অমনরাথ

  • আসানসোল পুরনিগমের নতুন পুর প্রশাসক পদে এলেন অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়। 

শনিবার আসানসোল পুরনিগমের নতুন পুর প্রশাসক পদে এলেন অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়। জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে আর প্রশাসক পদে বসাল না রাজ্য সরকার। বিজেপিতে যোগ দেবেন বলে সব ছেড়ে ছিলেন। কিন্তু বিজেপিতেও যাওয়া হল না, তৃণমূল কংগ্রেসে থেকেও পদ মিলল না। শনিবার নতুন প্রশাসকের নাম ঘোষণা করে জারি হয়েছে বিজ্ঞপ্তি। তাই দলে ফিরেও ব্রাত্যই রয়ে গেলেন দাপুটে তৃণমূল নেতা জিতেন্দ্র তিওয়ারি। যদিও নয়া পুর প্রশাসককে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি।

অমরনাথ চট্টোপাধ্যায় আসানসোল পুরনিগমের বিদায়ী চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি আসানসোল পুরনিগমের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। আগামী সোমবার থেকেই তিনি পুর প্রশাসক পদের দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। অমর এই দায়িত্ব পাওয়ায় তাঁর ওয়ার্ডের অনুগামী, নেতা, কর্মীদের পাশাপাশি খুশি সাধারণ মানুষজনও। অনেকে বলছেন, দেরিতে হলেও এতদিনে এক যোগ্য ব্যক্তিকে পুরনিগমের শীর্ষ পদে বসানো হল। জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে নিয়ে সাধারণ বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভ ছিল।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৪ অক্টোবর আসানসোল পুরনিগমের পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হয়। ১৫ অক্টোবর পুর প্রশাসক পদে বসানো হয় প্রাক্তন মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে। কিন্তু, রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের মধ্যে গত ১৬ ডিসেম্বর পুরপ্রশাসক পদ থেকে আচমকাই ইস্তফা দেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি। এই পরিস্থিতিতে তাঁর বিজেপিতে যোগদানের জল্পনা তুঙ্গে ওঠে। কিন্তু নাটকীয়ভাবে ঠিক দু’দিন পরেই আবার তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে আসেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি। দলের কাজেও যোগ দেন।

এতকিছুর পর আসানসোল পুরনিগমের পুরপ্রশাসক ও পশ্চিম বর্ধমানের জেলা সভাপতির পদে জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে আর ফেরাল না তৃণমূল। পুর প্রশাসক পদে বসার জন্য অন্যদের সঙ্গে বড় দাবিদার ছিলেন অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়। শেষপর্যন্ত প্রায় তিন সপ্তাহ পরে তাঁকেই সেই পদে বসানো হল। নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর অমরবাবুর প্রতিক্রিয়া, ‘‌দল ও সরকার আমাকে যে দায়িত্ব দিয়েছে, তা আমি যথাযথভাবে পালন করার চেষ্টা করব।’‌

বন্ধ করুন