বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Corruption in 100 days work: ১০০ দিনের কাজে দুর্নীতির অভিযোগে FIR দায়ের বিডিও-র, ফেরার পঞ্চায়েত প্রধান

Corruption in 100 days work: ১০০ দিনের কাজে দুর্নীতির অভিযোগে FIR দায়ের বিডিও-র, ফেরার পঞ্চায়েত প্রধান

১০০ দিনের কাজে দুর্নীতির অভিযোগ। প্রতীকী ছবি

বিডিওর অভিযোগ, ২০১৮- ১৯, ২০১৯-২০, এবং ২০২০- ২১ অর্থবছরে ওই পঞ্চায়েত প্রধান এবং কর্মীরা লক্ষাধিক টাকা প্রতারণা করেছেন। অভিযোগ পেয়েই পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিডিওর দ্বারস্থ হয়েছিলেন গ্রামবাসীদের একাংশ।

১০০ দিনের প্রকল্পে পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ প্রায়ই শোনা যায়। এবার এই প্রকল্প নিয়ে পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে থানায় এফআইআর করলেন বিডিও। আর থানায় অভিযোগ দায়ের হতেই গা টাকা দিলেন পঞ্চায়েত প্রধান। নদিয়ার তেহট্টের বেতাই ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের বিরুদ্ধে ১০০ দিনের আইবিএস প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগ করেছেন বিডিও। পঞ্চায়েত প্রধান-সহ ১৩ জন কর্মীর বিরুদ্ধে ২৯ লক্ষ টাকা নয়-ছয়ের অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

বিডিওর অভিযোগ, ২০১৮- ১৯, ২০১৯-২০, এবং ২০২০- ২১ অর্থবছরে ওই পঞ্চায়েত প্রধান এবং কর্মীরা লক্ষাধিক টাকা প্রতারণা করেছেন। অভিযোগ পেয়েই পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিডিওর দ্বারস্থ হয়েছিলেন গ্রামবাসীদের একাংশ। তাদের অভিযোগ ছিল, তাদের ভুলিয়ে আধার কার্ড জমির দলিলের মতো নথি নিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা উঠিয়ে নেওয়া হয়েছিল। এক গ্রামবাসী জানান, ‘১০০ দিনের প্রকল্প বাবদ আমার ২৮ হাজার টাকা পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আমি কোনও টাকা পায়নি। সেখানে কোনও কাজ হয়নি।’

এফআইআরে যে ১৩ জনের নাম রয়েছে তার মধ্যে রয়েছেন পঞ্চায়েত প্রধান সঞ্জিত পোদ্দার, পঞ্চায়েত কর্মী সুজিত মণ্ডল, উজ্জ্বল রায় প্রমুখ। কী কারণে টাকা নয়-ছয় করা হয়েছে তা নিয়ে যুগ্ম বিডিওর নেতৃত্বে গঠিত কমিটি ১৩ জনকে প্রথমে নোটিশ পাঠায়। কিন্তু, তার সদুত্তর না মেলায় তেহট্ট ১ নম্বর ব্লকের বিডিও তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। তারপর থেকেই পঞ্চায়েত প্রধান পলাতক রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

বন্ধ করুন