বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Sukanya Mondal: কীভাবে ৫ কোটি টাকার সম্পত্তি কিনলেন?‌ সুকন্যা মণ্ডলকে জিজ্ঞাসা করল সিবিআই
সুকন্যা মণ্ডল ও অনুব্রত মণ্ডল।

Sukanya Mondal: কীভাবে ৫ কোটি টাকার সম্পত্তি কিনলেন?‌ সুকন্যা মণ্ডলকে জিজ্ঞাসা করল সিবিআই

  • সুকন্যাকে জিজ্ঞাসাবাবদের পর শান্তিনিকেতনে সিবিআইয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পে তলব করা হয় শ্রীগুরু রাইস মিলের প্রয়াত মালিক হারাধন মণ্ডলের ছেলে শ্যামল মণ্ডলকে। অনুব্রতর মেয়েকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বোলপুর পোস্ট অফিসেও যায় সিবিআই। ভারত সেবাশ্রম সংঘেও তাঁরা গিয়েছিলেন। তাহলে কী গরু পাচারের অর্থ সর্বত্র পৌঁছেছে?‌

গরুপাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলের মেয়ে সুকন্যা মণ্ডলকে এক ঘণ্টার বেশি সময় ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করল সিবিআই। সিবিআই সূত্রে খবর, সম্পত্তি কেনার বিষয়ে একাধিক প্রশ্ন করা হয়েছে সুকন্যা মণ্ডলকে। তাঁর বয়ান খতিয়ে দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে। পেশায় স্কুল শিক্ষিকা৷ মাত্র কয়েক বছর চাকরি পেয়েছেন৷ তারই মধ্যে তিনি পাঁচ কোটি টাকার মালকিন! কীভাবে এটা সম্ভব হয়েছে? অনুব্রত মণ্ডলের কন্যা সুকন্যার সম্পত্তি বৃদ্ধির হিসেব খতিয়ে দেখতে গিয়ে এই তথ্য ভাবিয়ে তুলেছে তদন্তকারীদের।

ঠিক কী জানতে চান সিবিআই অফিসাররা?‌ সুকন্যা মণ্ডলের সঙ্গে কথা বলতে বোলপুরের নিচুপট্টিতে পৌঁছন সিবিআই অফিসাররা। সিবিআই অফিসারদের সঙ্গে কথা বলতে চাননি তিনি। পরে অবশ্য কথা হয়েছে। সুকন্যা পেশায় স্কুল শিক্ষিকা। ওই চাকরি করে ৫ কোটি টাকার সম্পত্তি কেনার অর্থ কোথা থেকে পেলেন?‌ এই প্রশ্নই তাঁকে জিজ্ঞাসা করেন গোয়েন্দারা। জেরায় বিস্তর অসঙ্গতি মিলেছে৷ যার জেরে বাড়ছে কেষ্ট কন্যার গ্রেফতারের সম্ভবনা৷ তবে জেরার বিষয়ে সুকন্যা মুখ না খুললেও তাঁর ঘনিষ্ঠমহল সূত্রে খবর, তদন্তকারীদের কঠিন প্রশ্নের মুখোমুখি হয়ে ঘাবড়ে গিয়েছেন তিনি।

কী তথ্য পেয়েছে সিবিআই?‌ সিবিআই সূত্রে খবর, এই ৫ কোটি টাকা ছাড়াও কোম্পানির ডিরেক্টর পদে রয়েছেন তিনি। সেই কোম্পানির নামে একাধিক সম্পত্তি রয়েছে। সেই টাকার উত্‍স কী?‌ জানতে চায় সিবিআই। সুকন্যার নামে থাকা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে প্রচুর নগদ অর্থ জমা রয়েছে। সেই টাকার উত্‍স নিয়েও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। একজন সামান্য স্কুল শিক্ষিকা মাত্র কয়েক বছর চাকরি করে কীভাবে এত সম্পত্তির মালিক হতে পারেন?‌ সেটাই বোঝার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা৷

উল্লেখ্য, সুকন্যা মণ্ডলকে জিজ্ঞাসাবাবদের পর শান্তিনিকেতনে সিবিআইয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পে তলব করা হয় শ্রীগুরু রাইস মিলের প্রয়াত মালিক হারাধন মণ্ডলের ছেলে শ্যামল মণ্ডলকে। অনুব্রত মণ্ডলের মেয়েকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বোলপুর পোস্ট অফিসেও যায় সিবিআই। ভারত সেবাশ্রম সংঘেও তাঁরা গিয়েছিলেন। তাহলে কী গরু পাচারের অর্থ সর্বত্র পৌঁছেছে?‌

বন্ধ করুন