বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দলেরই এক গোষ্ঠীর সভামঞ্চে লাঠি-বাঁশ দিয়ে হামলা তৃণমূলের অপর গোষ্ঠীর
দলেরই এক গোষ্ঠীর সভামঞ্চে লাঠি-বাঁশ দিয়ে হামলা তৃণমূলের অপর গোষ্ঠীর (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
দলেরই এক গোষ্ঠীর সভামঞ্চে লাঠি-বাঁশ দিয়ে হামলা তৃণমূলের অপর গোষ্ঠীর (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)

দলেরই এক গোষ্ঠীর সভামঞ্চে লাঠি-বাঁশ দিয়ে হামলা তৃণমূলের অপর গোষ্ঠীর

  • এই ঘটনার প্রতিবাদে তৃণমূল কর্মীদের একাংশ টাকি রোড অবরোধ করেন।

দলের প্রতিষ্ঠা দিবসে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় গোষ্ঠী সঙ্গর্ষে জড়িয়ে পড়ল তৃণমূল। প্রতিষ্ঠা দিবসে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দত্তপুকুরের কদম্বগাছির হাটখোলা এলাকা। তৃণমূলের এক গোষ্ঠী অপর এক গোষ্ঠীর উপরে লাঠি, বাঁশ দিয়ে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। এই ঘটনার প্রতিবাদে তৃণমূল কর্মীদের একাংশ টাকি রোড অবরোধ করেন। যদিও পুলিশ তাদের অবরোধ তুলে দেয়।

এই ঘটনায় হামলার অভিযোগ উঠেছে হাটখোলা এলাকার তৃণমূল নেতা তথা গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য মেহেবুব হাসান সরদারের বিরুদ্ধে। তাঁর দলবল সভামঞ্চে গিয়ে হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ। তৃণমূল সূত্রে জানা যাচ্ছে, দলের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্যে শনিবার সেখানে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন বারাসতের দলের সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি মাহফুজার রহমান। অনুষ্ঠানে ছিলেন তৃণমূল নেতা ও প্রাক্তন মন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসু। অভিযোগ, তিনি অনুষ্ঠান শেষে চলে যাওয়ার পরেই সভামঞ্চে হামলা চালায় মেহেবুব হাসানের দলবল। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন মাহফুজার রহমান। তিনি বলেছেন, 'এটি অবাঞ্চনীয় ঘটনা। আমরা কখনওই এই ধরনের ঘটনা সমর্থন করি না। এ নিয়ে আমরা দলের কাছে অভিযোগ জানাব।'

যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মেহবুব হাসান সর্দার। তিনি বলেন, 'দলের প্রতিষ্ঠা দিবস চলছে। আমরা বাইক মিছিল করে দলের প্রতিষ্ঠা দিবস পালন করেছি। আমরা কেন হামলা করতে যাব?' উল্টে এই ঘটনার জন্য মাহফুজার রহমানকেই দায়ী করেছেন তিনি। তার অভিযোগ, 'মাহফুজার রহমানকে কেউ চেনে না। তাই প্রকাশ্যে আসতে তিনি নিজেই এই ঘটনা ঘটিয়েছেন।'

বারাসাতের সাংগঠনিক জেলা সভাপতি অশনি মুখোপাধ্যায় দাবি করেছেন, এই ঘটনায় তৃণমূলের কেউ জড়িত নন। পাশাপাশি দলের কেউ জড়িত থাকলে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

বন্ধ করুন