বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পুলিশকে ‘হিজড়া’ বলে আক্রমণ দিলীপের, দিলেন গাছে বেঁধে রাখার নিদান
রবির সাঁঝবেলায় পূর্ব মেদিনীপুরে দিলীপ ঘোষ। 
রবির সাঁঝবেলায় পূর্ব মেদিনীপুরে দিলীপ ঘোষ। 

পুলিশকে ‘হিজড়া’ বলে আক্রমণ দিলীপের, দিলেন গাছে বেঁধে রাখার নিদান

  • পুলিশের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকেও প্ররোচনা দেন দিলীপবাবু। বলেন, 'রাতে যদি পুলিসের কেউ রেড করতে আসে, তাহলে তাঁকে ধরে গাছে বেঁধে রাখবেন। সকালে বিচার হবে। আমাদের পয়সায় পুলিস তৃণমূলের ক্যাডার হয়ে কাজ করছে!'

ভোট যত এগিয়ে আসছে তত ভাষা সংযমের রাশ আলগা করছেন পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক নেতারা। আর সেই মিছিলের নেতাদের অন্যতম বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তৃণমূলের মোকাবিলা করতে গিয়ে প্রায় রোজই বিতর্কিত শব্দ শোনা যাচ্ছে তাঁর মুখে। যা নিয়ে নিন্দায় মুখর হচ্ছেন বিরোধীরা। ব্যতিক্রম হল না রবিবারও। এদিনও পুলিশকে বেলাগাম ভাষায় আক্রমণ করলেন দিলীপবাবু। পুলিশকে ‘হিজড়া’ বলে আক্রমণ করেন তিনি। বলেন, রাতে পুলিশের লোক গ্রামে তল্লাশি চালাতে এলে গাছে বেঁধে রাখুন।

রবিবার পূর্ব মেদিনীপুরের পটাশপুরে ছিল বিজেপির সভা। তার আগে সেখানে রোড শো করেন দিলীপবাবু। এর পর সভায় বক্তব্য রাখতে উঠে দিলীপ ঘোষ পুলিশকে লক্ষ্য করে বেলাগাম আক্রমণ চালান। বলেন, 'কিছু পুলিশ অফিসার আছে, চামচাগিরি করে, এখনও সময় আছে। শুধরে যান, আপনারা যে উর্দি পরেন, তা জনগণের ট্যাক্সের টাকায় তৈরি, ওটা আপনার বাপের বা তৃণমূলের জমিদারি নয়।'

পুলিশের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকেও প্ররোচনা দেন দিলীপবাবু। বলেন, 'রাতে যদি পুলিসের কেউ রেইড করতে আসে, তাহলে তাঁকে ধরে গাছে বেঁধে রাখবেন। সকালে বিচার হবে। আমাদের পয়সায় পুলিস তৃণমূলের ক্যাডার হয়ে কাজ করছে!'

তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়ের পাল্টা প্রতিক্রিয়া, 'দিলীপবাবু একজন অসভ্য লোক। বাংলা শেখেননি, অর্ধশিক্ষিত। যদি নিজেকে সংশোধন না করেন, তাহলে রাজনৈতিক ক্ষেত্র থেকে বহিষ্কার করা উচিত।'

 

বন্ধ করুন