বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > স্কুলছুটদের ফেরাতে হবে স্কুলে, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ প্রশাসনের
স্কুলছুটদের পুনরায় স্কুলে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ । প্রতীকী ছবি (PTI)
স্কুলছুটদের পুনরায় স্কুলে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ । প্রতীকী ছবি (PTI)

স্কুলছুটদের ফেরাতে হবে স্কুলে, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ প্রশাসনের

বিভিন্ন স্কুল এবং জেলা প্রশাসন স্কুলছুটদের ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী হয়েছে। এরকমই স্কুলছুটদের ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী হয়েছে ঝাড়্গ্রাম জেলা প্রশাসন ও শিক্ষা দফতর। জেলাশাসক জয়সি দাশগুপ্ত জানিয়েছেন, কতজন পড়ুয়া স্কুল ছেড়েছে তার জন্য সম্প্রতি একটি সমীক্ষা করা হয়েছে।

করোনা আবহে প্রায় ২০ মাস বন্ধ থাকার পর পুনরায় চালু হয়েছে স্কুল কলেজ। দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার ফলে অনেক পড়ুয়া পড়াশোনা ছেড়ে দিয়ে রুজি-রুটির সন্ধানে বেরিয়ে পড়েছে। বিশেষ করে গ্রামীণ এলাকায় স্কুলছুটদের সংখ্যাটা অনেক বেশি। ইতিমধ্যেই স্কুলছুটদের পুনরায় স্কুলে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে রাজ্য সরকারের কাছে আবেদন করেছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। পাশাপাশি বিভিন্ন স্কুল এবং জেলা প্রশাসন স্কুলছুটদের ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী হয়েছে। এরকমই স্কুলছুটদের ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগী হয়েছে ঝাড়্গ্রাম জেলা প্রশাসন ও শিক্ষা দফতর।

জেলাশাসক জয়সি দাশগুপ্ত জানিয়েছেন, কতজন পড়ুয়া স্কুল ছেড়েছে তার জন্য সম্প্রতি একটি সমীক্ষা করা হয়েছে। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে ঝাড়্গ্রাম জেলা জুড়ে ৬০০ পড়ুয়া স্কুল ছেড়েছে। এই সমস্ত পড়ুয়াদের যাতে পুনরায় স্কুলে ফেরানো যায় তার জন্য প্রতিটি স্কুলকে স্কুলছুটদের তালিকা তৈরি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই তালিকা অনুযায়ী পড়ুয়াদের অভিভাবকদের স্কুলে ডেকে তাদের সঙ্গে কথা বলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কথা বলে পড়ুয়াদের আবার স্কুলে পাঠানোর জন্য অভিভাবকদের কাছে অনুরোধ করতে বলা হয়েছে। প্রয়োজনে পড়ুয়াদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলারও নির্দেশ দিয়েছেন জেলাশাসক।

শিক্ষকদের দাবি, দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকায় অনেক ছাত্র ভিন রাজ্যে কাজে চলে গিয়েছে। আবার অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়া সত্ত্বেও অনেক ছাত্রীর বিবাহ দেওয়া হয়েছে তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে। সেই কারণে স্কুল থেকে বিমুখ হয়েছে বহু পড়ুয়া।

পড়ুয়াদের স্কুলে ফেরাতে প্রয়োজনে তাদের বন্ধু বান্ধবদেরও বোঝাতে বলেছেন জেলাশাসক। তিনি মনে করেন, অনেকে হয়তো বন্ধু-বান্ধবের কথা শুনে আবার স্কুলে ফিরে আসতে পারে। তাছাড়া সরকারি অনেক প্রকল্প রয়েছে যার সাহায্যে পড়ুয়াদের আর্থিক সাহায্য ও সুবিধা দেওয়া হয়। প্রয়োজনে অভিবাবকদের সেই সমস্ত সুবিধার কথা মনে করিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন জেলাশাসক।জেলাশাসকের বলেন, ''আমরা হয়তো সবাইকে স্কুলে ফিরিয়ে আনতে পারব না। কিন্তু চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।''

বন্ধ করুন