বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাজারে হাজির হাতির দল, প্রাণভয়ে দৌড় স্থানীয়দের
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

বাজারে হাজির হাতির দল, প্রাণভয়ে দৌড় স্থানীয়দের

  • স্থানীয় সূত্রে খবর, ঝাড়খণ্ড থেকে ২২টি হাতির দল গিধনি বনাঞ্চলে এসেছে। সেই দলটি লোকালয়ে ঢুকে ক্ষয়ক্ষতি করছে।

জনবহুল বাজারে আচমকা হাজির শাবক–সহ ১২টি হাতির দল। জামবনির ব্লক সদর গিধনির কালীমন্দির চত্বরের আনাজ বাজারে ওই হাতির দলটিকে দেখে দৌড় সকলের। এই ঘটনার ভিডিও মোবাইল ফোনে ক্যামেরা বন্দি করলেন অনেকেই। দিবালোকে জনবহুল লোকালয়ে হাতির দল ঢুকে পড়ায় রীতিমতো উদ্বিগ্ন এলাকাবাসী।

ঝাড়খণ্ড রাজ্যের গিধনি এলাকাটি জনবহুল। স্থানীয় সূত্রে খবর, ঝাড়খণ্ড থেকে ২২টি হাতির দল গিধনি বনাঞ্চলে এসেছে। সেই দলটি লোকালয়ে ঢুকে ক্ষয়ক্ষতি করছে। বৃষ্টির জন্য হাতি খেদানোর কাজ বাধা পেয়ে গিধনি লাগোয়া কানাইশোলের জঙ্গলে হাতির দলটিকে আটকে ঘুরপথে ঝাড়খণ্ডের দিকে পাঠানোর চেষ্টা করছিলেন বনকর্মীরা।

এদিন ১২টি হাতি দিকভ্রষ্ট হয়ে গিধনি সাঁওতালপাড়া প্রাথমিক স্কুলের ঢালাই রাস্তা দিয়ে লোকালয়ে ঢোকে। একটি বাড়ির পাঁচিলের গ্রিলের দরজাও ভাঙে তারা। এর পর রেল কলোনি হয়ে পূর্বাশা মাঠের ধার বরাবর পিচরাস্তা ধরে হাতির দলটি দ্রুত পায়ে গিধনি কালীমন্দির এলাকার আনাজ বাজারে হাজির হয়। হাতিরা অবশ্য আনাজ খায়নি। শাবক নিয়ে দ্রুত পায়ে লোকালয় থেকে যেন বেরিয়ে যেতে চাইছিল হাতিরা।

জানা গিয়েছে, রেলস্টেশন হয়ে হাতির দলটি যখন খেঁড়েজোড়া বাঁধের দিকে যাচ্ছে, তখন প্রাণভয়ে দোকানপাট ফেলে পালিয়েছেন অনেক ব্যবসায়ী। বনকর্মী ও হুলাপার্টির তাড়া খেয়ে হাতিরা আশ্রমের পিছনের পাঁচিল ভেঙে শালিকার জঙ্গলে ঢুকে যায়। ঝাড়গ্রামের ডিএফও বাসবরাজ হলেইচ্চি বলেন, ‘মানুষজন হাতিকে বিরক্ত করায় হাতিরা দিকভ্রষ্ট হচ্ছে। দলটিকে ঝাড়খণ্ডে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা হচ্ছে। লোকালয়ে হাতি ঢুকলেও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।’‌

বন্ধ করুন