বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ঘাটালের কোভিড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, চাঞ্চল্য
ঘাটালের কোভিড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, চাঞ্চল্য : ছবিটি প্রতীকী (HT_PRINT)
ঘাটালের কোভিড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, চাঞ্চল্য : ছবিটি প্রতীকী (HT_PRINT)

ঘাটালের কোভিড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, চাঞ্চল্য

  • হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে হাসপাতালের দরজার পিছনে গলায় গামছা জড়ানো অবস্থায় ওই রোগীর দেহ ঝুলতে দেখা যায়। হাসপাতালের কর্মীদের চোখে পড়লে, তারাই কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান। তারপর পুলিশে খবর দেওয়া হয়।

ঘাটালের কোভিড হাসপাতালের মধ্যে থেকে এক করোনা রোগীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই রোগীর নাম শিবরাম ঘোষ (‌৪৫)‌। চন্দ্রকোণা থানা এলাকার পালংপুর গ্রামের বাসিন্দা শিবরামবাবু। বুধবার সকালে ওই রোগীর দেহ হাসপাতালের দরজায় ঝুলতে দেখেন হাসপাতালের কর্মীরা। খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তার পর ওই দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। মানসিক অবসাদ ওই রোগীর মৃত্যু হয়েছে, না কি এর পিছনে অন্য কোনও কারণ আছে, তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকালে হাসপাতালের দরজার পিছনে গলায় গামছা জড়ানো অবস্থায় ওই রোগীর দেহ ঝুলতে দেখা যায়। হাসপাতালের কর্মীদের চোখে পড়লে, তারাই কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান। তারপর পুলিশে খবর দেওয়া হয়।

এপ্রসঙ্গে জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক নিমাইচন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘‌ ঘাটালের কোভিড হাসপাতাল থেকে এক করোনা আক্রান্ত রোগীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কী কারণ ওই ব্যক্তির মৃত্যু হল, তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।’‌ অন্য দিকে, জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (‌খড়গপুর)‌ রানা মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‌ হাসপাতাল থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করা হয়েছে। কী কারণে এই মৃত্যু হল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

মৃত ওই রোগীর এক আত্মীয় জানান, গত ১৪ দিন আগে করোনা আক্রান্ত হয়ে ঘাটালের কোভিড হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন শিবরামবাবু। সুস্থ্যও হয়ে গিয়েছিলেন। সেকারণে ৩ দিন আগে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। কিন্তু ফের শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেওয়ায়, হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাননি তিনি। মঙ্গলবারেও পরিবারের সঙ্গে কথা হয়েছে ওই রোগীর। কিন্তু এর মধ্যে কীভাবে এই ঘটনা ঘটে গেল তা নিয়ে ধোঁয়াশায় রয়েছেন শিবরামবাবুর পরিবার।

বন্ধ করুন