বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'চক্রান্ত করলে অভিষেকের বিরুদ্ধে করবে বিজেপি', বিতর্কের মধ্যে সাফাই সায়ন্তনের
সায়ন্তন বসু। ফাইল ছবি
সায়ন্তন বসু। ফাইল ছবি

'চক্রান্ত করলে অভিষেকের বিরুদ্ধে করবে বিজেপি', বিতর্কের মধ্যে সাফাই সায়ন্তনের

দিলীপের মন্তব্যে যে বিতর্ক তৈরি হয়, তা নিয়ে সাফাই গাইলেন সায়ন্তন।

দুর্নীতির অভিযোগে বর্ধমানের পুরপ্রশাসক প্রণব চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করা হয়। এই ঘটনায় বিজেপির বিরুদ্ধে চক্রান্তের অভিযোগ এনেছে তৃণমূল। তৃণমূলকে পাল্টা জবাবও দিয়েছেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু। বিজেপি নেতার প্রশ্ন, বিজেপি কেন চক্রান্ত করে পুরপ্রশাসককে জেলে ভরবে?

তৃণমূলকে পাল্টা জবাব দিতে গিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কেই নিশানা করলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু। এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ‘‌প্রণববাবুকে কে চেনে? কেউ কী চেনে যে বিজেপি তাঁর বিরুদ্ধে চক্রান্ত করবে?‌ বিজেপি চক্রান্ত করলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে করবে। বিজেপি চক্রান্ত করলে তৃণমূলের কোনও নেতা–মন্ত্রী জেলের বাইরে থাকতেন না।’‌

উল্লেখ্য, বর্ধমানের পুর প্রশাসক প্রণব চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতারির পরই এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি। গত শুক্রবার বর্ধমানে প্রণবের বাড়িতে হানা দেয় সিবিআইয়ের দল। পাশাপাশি বর্ধমানের ঢলদিঘিতে একটি বহুতলের আবাসনে হানা দেয় সিবিআইয়ের দল। অভিযোগ, ওই বহুতলের আবাসনেই ছিল চিটফান্ড সংস্থার অফিস। সেই অফিসই ভাড়া দিয়েছিলেন পুর প্রশাসক।

সেই গ্রেফতারির পর বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, 'আমরা যেটা চাইছিলাম সেটাই হল। অনেকদিন ধরে চাইছিলাম সিবিআই অ্যাক্টিভ হোক। তারা ঠিকমতো তথ্য পাচ্ছিল না। কাজ করতে পারছিল না। এবার পারবে। পশ্চিমবঙ্গে যে এত বড় বড় দুর্নীতি হয়েছে বিশেষ করে ৮০ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি। যার জন্য লাখ লাখ লোক সর্বস্বান্ত হয়েছে। তাই সিবিআইয়ের দ্রুত পদক্ষেপ করা উচিত, দোষীদের আদালতে পেশ করা উচিত।’‌ সেই মন্তব্য ঘিরে শুরু হয় বিতর্ক।

তর্ক।

বন্ধ করুন