বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Madhyamik 2021: হচ্ছে না মাধ্যমিক,নবম না দশম শ্রেণিতে প্রাধান্য? সিদ্ধান্ত দ্রুত
হচ্ছে না মাধ্যমিক পরীক্ষা। জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
হচ্ছে না মাধ্যমিক পরীক্ষা। জানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

Madhyamik 2021: হচ্ছে না মাধ্যমিক,নবম না দশম শ্রেণিতে প্রাধান্য? সিদ্ধান্ত দ্রুত

  • কীভাবে পড়ুয়াদের নম্বর দেওয়া হবে, তা নিয়ে আগামী সাতদিনের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে।

শেষ কয়েকদিনের গতিপ্রকৃতিতেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল মাধ্যমিকের ভবিষ্যৎ। স্রেফ রাজ্য সরকারের চূড়ান্ত সিলমোহর পড়ার অপেক্ষা ছিল। শেষপর্যন্ত সরকারিভাবে জানিয়ে দেওয়া হল, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বাতিল হয়ে যাচ্ছে মাধ্যমিক পরীক্ষা। কীভাবে পড়ুয়াদের নম্বর দেওয়া হবে, তা নিয়ে আগামী সাতদিনের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে।

সোমবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, পড়ুয়া, অভিভাবক ও আমজনতার থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক নিয়ে মতামত চাওয়া হয়েছিল, তাতে ৭৯ শতাংশ মানুষ মাধ্যমিক বাতিলের পক্ষে মত দিয়েছেন। সেইসঙ্গে বিশেষজ্ঞ কমিটির বিবেচনা করা হয়েছে। মমতা বলেন, 'প্রত্যেকের মতামত গুরুত্বপূর্ণ। এই পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্টের একটা পর্যবেক্ষণও আছে। বিশেষজ্ঞ কমিটিও বলেছে যে এই সময় পরীক্ষা নেওয়া উচিত নয়। যেহেতু মহামারী চলছে, অনেক স্কুল সেফ হাউস হয়ে গিয়েছে। নানা রকম ব্যাপার আছে। তাই আমরা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিচ্ছি না।'

শেষ কয়েকদিনের গতিপ্রকৃতিতেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল মাধ্যমিকের ভবিষ্যৎ। স্রেফ রাজ্য সরকারের চূড়ান্ত সিলমোহর পড়ার অপেক্ষা ছিল। শেষপর্যন্ত সরকারিভাবে জানিয়ে দেওয়া হল, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বাতিল হয়ে যাচ্ছে মাধ্যমিক পরীক্ষা। কীভাবে পড়ুয়াদের নম্বর দেওয়া হবে, তা নিয়ে আগামী সাতদিনের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে।

সোমবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, পড়ুয়া, অভিভাবক ও আমজনতার থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক নিয়ে মতামত চাওয়া হয়েছিল, তাতে ৭৯ শতাংশ মানুষ মাধ্যমিক বাতিলের পক্ষে মত দিয়েছেন। সেইসঙ্গে বিশেষজ্ঞ কমিটির বিবেচনা করা হয়েছে। মমতা বলেন, 'প্রত্যেকের মতামত গুরুত্বপূর্ণ। এই পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্টের একটা পর্যবেক্ষণও আছে। বিশেষজ্ঞ কমিটিও বলেছে যে এই সময় পরীক্ষা নেওয়া উচিত নয়। যেহেতু মহামারী চলছে, অনেক স্কুল সেফ হাউস হয়ে গিয়েছে। নানা রকম ব্যাপার আছে। তাই আমরা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নিচ্ছি না।'|#+|

তবে কীভাবে মূল্যায়ন কীভাবে হবে, সে বিষয়ে এখনও কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং স্কুলশিক্ষা দফতরের আলোচনার ভিত্তিতে আগামী সাতদিনের মধ্যে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘কিন্তু মূল্যায়ন হবে, সেটা মধ্যশিক্ষা পর্ষদ, উচ্চ শিক্ষা সংসদ এবং শিক্ষা দফতর একসঙ্গে বসে সেটা দেখে নেবে। বিশেষজ্ঞ কমিটিও আছে। তবে দেখে নিতে হবে, বাচ্চাদের যেন কোনও অসুবিধা না হয়।’

এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না নেওয়া হলেও মূল্যায়ন নিয়ে কী কী পরামর্শ এসেছে, সে বিষয়ে কিছুটা জানান মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, বিশেষজ্ঞ কমিটি প্রস্তাব দিয়েছে যে নবম শ্রেণিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হোক। ৭০ শতাংশ নম্বর দেওয়া হোক নবম শ্রেণি থেকে। বাকি ৩০ শতাংশের নম্বর দশম শ্রেণি থেকে দেওয়া হোক (যদিও করোনার দাপটে এবার প্রি-টেস্ট ও টেস্ট হয়নি)। অনেকের আবার বক্তব্য, নবম এবং দশম শ্রেণি তো এখন আলাদা। তাহলে কেন নবম শ্রেণিকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিশেষজ্ঞ কমিটির নবম শ্রেণির ৭০ শতাংশ ও দশম শ্রেণিং ৩০ শতাংশ নম্বরের বিষয়টা উলটেও দেওয়া যেতে পারে বলে আমার মনে হয়।’

সেই পরিস্থিতিতে পর্ষদ ও শিক্ষা দফতরকে যাবতীয় বিষয় খতিয়ে দেখতে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘এগুলি কিন্তু ভালো করে ভাববেন। বাচ্চাদের পক্ষে যেটা সুবিধার হবে, (সেটা করবেন)। তারা যেন বঞ্চিত না হয়। পরীক্ষা না হলে ছেলেপিলেদের সমস্যা হয়। অনেক ভালো পড়ুয়া আছে, যারা মাধ্যমিকের উপর নির্ভর করেই জীবনে গতি তৈরি করে।’

বন্ধ করুন