বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'লোহার টুকরো দেখে' চোর সন্দেহ, মেদিনীপুরে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে রাখা হল নাবালিকাকে

‌কয়েক মাস আগে এই ধরনের ঘটনার সাক্ষী থেকেছিল কলকাতা। প্রায় সেই একই ধরনের অমানবিকতার ছবি ধরা পড়ল মেদিনীপুর শহরে। চুরির দায়ে প্রকাশ্যে রাস্তায় বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখা হল এক নাবালিকাকে। দু'ঘণ্টা ধরে বেঁধে রাখার পর পুলিশ এসে ওই নাবালিকাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দাদের তরফে জানা যায়, এদিন সকালে মেদিনীপুরের রবীন্দ্রনগর এলাকায় পাতা কুড়িয়ে নিয়ে যেতে আসেন একদল নাবালিকা। সেই সময় এলাকায় একটি নির্মাণকাজে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এক যুবকের তাঁদের দেখে সন্দেহ হয়। চোর সন্দেহে তাঁদের ধাওয়া করেন ওই যুবক। যুবককে ধাওয়া করতে দেখে নাবালিকারা তাঁকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়ে বলে অভিযোগ। শেষপর্যন্ত ওই নাবালিকাদের মধ্যে একজনকে ধরে ফেলেন ওই যুবক। এরপর ওই মেয়েটিকে বিদ্যুতের খুঁটিতে দড়ি দিয়ে বেঁধে আটকে রাখেন। ওই নাবালিকাকে মারধরও করা হয়। প্রায় দু'ঘণ্টা ধরে তাঁকে আটকে রাখা হয়। এরপর স্থানীয় বাসিন্দারাই কোতোয়ালি থানার পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে নাবালিকাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

নাবালিকার দাবি, তাঁরা এলাকায় পাতা কোড়াতে এসেছিলেন। অন্য কোনও উদ্দেশ্য তাঁদের ছিল না। তাঁদের ঝুলিতে দুটো লোহার টুকরো দেখে নাকি ওই যুবকের সন্দেহ হয়। তবে যুবককে লক্ষ্য করে কোনও ইট ছোড়া হয়নি বলে জানিয়েছেন ওই নাবালিকা। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। এর আগে খাস কলকাতায় মানিকতলায় একটি গলিতে চোর সন্দেহে এক যুবককে বিদ্যুতের খুঁটিতে বেঁধে মারধর করার ঘটনা ঘটেছিল কয়েকজন যুবকের বিরুদ্ধে। পরে ওই যুবকের মৃত্যুও হয়। অমানবিক এই ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছিলেন এলাকার বাসিন্দারা।

বন্ধ করুন