বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > NJP: এবার গেলে আর চিনতে পারবেন না, সেজে উঠছে এনজেপি স্টেশন, বরাদ্দ ৩৫০ কোটি
নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন।  (সংগৃহীত)
নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন।  (সংগৃহীত)

NJP: এবার গেলে আর চিনতে পারবেন না, সেজে উঠছে এনজেপি স্টেশন, বরাদ্দ ৩৫০ কোটি

  • সেই চিরচেনা এনজেপি স্টেশন। দার্জিলিংয়ে বেড়াতে যাওয়ার সময় এই স্টেশনে পা পড়ে অনেকেরই। আর কেমন যেন মায়া পড়ে যায় এই স্টেশনের প্রতি। সেই স্টেশনই এবার সেজে উঠবে নয়া রূপে।

নিউ জলপাইগুড়ি। আর দার্জিলিং পাহাড়ে যাওয়ার পথে এনজেপিতে নামার স্মৃতি অনেকের কাছে টাটকা হয়ে আছে। তবে এবার গেলে আর চিনতে পারবেন না। এতটাই ঝা চকচকে আধুনিক হয়ে উঠবে এই চিরচেনা এনজেপি স্টেশন। একেবারে মেট্রো স্টেশনের মতো ঝা চকচকে হয়ে যাবে উত্তরবঙ্গের এই গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন। এনিয়ে রেলমন্ত্রকের তরফে জলপাইগুড়ির সাংসদ জয়ন্ত রায়ের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে। রেল সূত্রে খবর মূলত পর্যন্ত পর্যটনকে গুরুত্ব দিয়ে এনজেপিকে সাজিয়ে তোলা হচ্ছে।

সূত্রের খবর, মেজর আপগ্রেডেশন অফ রেলওয়ে স্টেশন অন ইন্ডিয়ান রেলওয়ে এই স্কিমে কাজ হবে এনজেপিতে। এটি উত্তর পূর্বভারতের প্রবেশদ্বার বলেও খ্যাত। ইন্দোর ও ভুবনেশ্বরকেও এভাবে সাজিয়ে তোলা হচ্ছে। ঠিক কী হবে এনজেপিতে?  সূত্রের খবর দুটি প্রবেশপথ করার ব্যাপারে চিন্তাভাবনা রয়েছে। কয়েকটি এসি প্রতীক্ষালয় করা হবে। এব্যাপারে যাত্রীদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। তৈরি হবে আধুনিক ফুড পার্ক। ট্রেনের সংখ্যাও বৃদ্ধি হতে পারে। রেলের ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমেরও পরিবর্তন হবে। পার্কিং ব্যবস্থাও অত্যাধুনিক হবে। এছাড়াও সার্বিকভাবে আরও আধুনিকীকরণ করা হবে স্টেশনের। পর্যটকবান্ধব স্টেশন হিসাবে গড়ে তোলা হবে এই স্টেশনকে।এদিকে পাহাড়ে বেড়াতে যাওয়ার জন্য প্রচুর পর্যটক এনজেপি স্টেশনে নামেন। তাঁরাও স্বস্তি পাবেন এই আধুনিকীকরণের জেরে। পর্যটন ব্যবসায়ীরাও এই উদ্যোগে অত্যন্ত খুশি।

বন্ধ করুন