বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বারাসতে ঘরছাড়া বিজেপি নেতা কর্মীদের ঘরের দোরগোড়া পর্যন্ত পৌঁছে দিল পুলিশ
একেবারে বৃষ্টি মাথায় করে ঘরছাড়া বিজেপি কর্মীদের ঘরে পৌঁছে দিল পুলিশ (নিজস্ব চিত্র)

বারাসতে ঘরছাড়া বিজেপি নেতা কর্মীদের ঘরের দোরগোড়া পর্যন্ত পৌঁছে দিল পুলিশ

  • ভোট পরবর্তী হিংসার জেরে আতঙ্কে তাঁরা বাড়ি থেকে পালিয়েছিলেন।

বিশ্বজিৎ ঘোষ, জয়দেব মণ্ডল। দুজনেই বারাসতের বিজেপির স্থানীয় নেতা। ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর থেকেই তাঁদের মতো অনেকেই ঘরছাড়া ছিলেন। আতঙ্কে বাড়ি ফিরতে পারছিলেন না। এরপর শনিবার পুলিশ ঘরছাড়া বিজেপির নেতা কর্মীদের ঘরে ফেরানোর ব্যবস্থা করেন। তাঁদের প্রয়োজনীয় সুরক্ষার আশ্বাসও দেন পুলিশ আধিকারিকরা। প্রচণ্ড বৃষ্টির মধ্যে ছাতা মাথায় একেবারে ঘরের দোরগোড়া পর্যন্ত পৌঁছে দেয় পুলিশ। 

এদিকে অনেকেরই বাড়িতে বয়স্ক বাবা, মা রয়েছেন। প্রায় দেড় মাস ধরে তাঁরা অত্যন্ত উদ্বেগের মধ্যে দিন কাটিয়েছেন। এদিন ঘরের ছেলে ঘরে ফেরায় কিছুটা হলেও স্বস্তি পেয়েছেন তাঁরা।  প্রসঙ্গত বারসতের ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের ৭-৮জন বিজেপির নেতা কর্মী ভোটের ফলাফল ঘোষণা হতেই সন্ত্রাসের আতঙ্কে ঘর ছেড়ে চলে যান। ঘরে ফেরার পরে বিশ্বজিৎ ঘোষ বলেন, ‘বাড়িতে কম্পিউটার, টিভি যা ছিল সব ওরা ভেঙে দিয়েছে। আমার ভাইকেও ওরা মারধর করেছে। প্রাণে মেরে ফেলারও হুমকি ওরা দিয়েছিল। এরপরই বাড়ি ছেড়ে চলে যাই। তবে পুলিশ এদিন পৌঁছে দিয়ে গিয়েছে।’

ঘরে ফিরে আসা অপর বিজেপি নেতা জয়দেব মণ্ডল বলেন, ‘দেড় মাস বাড়িতে ঢুকতে পারিনি। বিভিন্ন জায়গায় ছিলাম। তবে আদালতের নির্দেশে পুলিশ এদিন বাড়িতে দিয়ে গিয়েছে।’ তবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে ক্ষোভে ফুঁসছেন অনেকেই। কিন্তু প্রকাশ্যে অনেকেই মুখ খুলতে চাইছেন না। তবে সন্ত্রাসের অভিযোগ মানতে চায়নি তৃণমূল। অন্য়দিকে ভোটে পরাজিত হওয়ার পরে ঘরছাড়াদের পাশে বিজেপি নেতৃত্ব কতটা আছেন তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে।  

 

বন্ধ করুন