বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > স্রোত ঘুরে গিয়েছে! সোনালীর পর এবার দলে ফিরতে চেয়ে কাতর আবেদন মালদার সরলা মুর্মুর
সরলা মুর্মু (ফাইল ছবি)
সরলা মুর্মু (ফাইল ছবি)

স্রোত ঘুরে গিয়েছে! সোনালীর পর এবার দলে ফিরতে চেয়ে কাতর আবেদন মালদার সরলা মুর্মুর

  • আর কতজন রয়েছেন এই লাইনে?

গত বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়ার জন্য একেবারে হিড়িক পড়ে গিয়েছিল। কেউ কান্নাকাটি করে, কেউ অভিমান দেখিয়ে, কেউ আবার দমবন্ধ অবস্থায় থাকা যাচ্ছে না, একথা বলে বিজেপিতে চলে গিয়েছেন। আর সেই বিজেপির পরাজয়ের পরেই এবার ফের তৃণমূলে ফেরার জন্য শুরু হয়েছে নানা আবেদন নিবেদন। রাজনৈতিক মহলের মতে,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একসময়ের ছায়াসঙ্গী সোনালী গুহও বিজেপিতে চলে গিয়েছিলেন। সেই সোনালীও এখন তৃণমূলে ফেরার জন্য রীতিমতো কাকুতি মিনতি শুরু করেছেন। সেই পথে এবার পুরানো দলে ফিরতে চাইছেন মালদার সরলা মুর্মুও। রাজনৈতিক মহলের মতে, টিকিট পাওয়ার পরেও তিনি চলে গিয়েছিলেন বিজেপিতে। এবার সেই সরলাই সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলছেন, দলে ফিরতে চাই। ভুল বুঝিয়ে বিজেপি দলে নিয়েছিল। নিজের ভুল বুঝতে পেরে দলে ফিরতে চাইছেন তিনি। এমনকী দলের জেলা নেতৃত্বকেও জানিয়েছেন তিনি। 

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, হবিবপুর আসনে সরলাকে প্রার্থী করা হয়েছিল। তারপরেও তিনি মালদা থেকে লড়ার আবদার করেছিলেন। এরপর বিজেপিতে চলে যান। কিন্তু রাজ্য জুড়েই ভরাডুবি হয়েছে বিজেপির। এরপরই আর বিজেপিতে থাকতে চাইছেন না তৎকালীন বেসুরোরা। এবার বিজেপিতে গিয়েও বেসুরো গাইতে শুরু করেছেন তাঁরা। কিন্তু তৃণমূল নেতৃত্বের একাংশের মতে, দলের সঙ্গে বেইমানি করেছেন তিনি। এরপর রাজ্য নেতৃত্ব কী করবেন সেটা তাঁদের ব্যাপার। এদিকে বিজেপি নেতৃত্বও কার্যত আতান্তরে পড়েছেন। তবে রাজনৈতিক মহলের মতে, তৃণমূলের একাধিক হেভিওয়েট নেতাই ভোটের আগে বিজেপিতে ভিড়ে গিয়েছিলেন। তৃণমূলকে হারাতে কার্যত আদাজল খেয়ে ময়দানে নেমেছিলেন তাঁরা। এদিকে গেরুয়া শিবিরের পরাজয়ের পর তাঁদের আর বিশেষ দেখা যাচ্ছে না। তবে তাঁরাও কি লাইন দিয়েছেন তৃণমূলে আসার জন্য?

 

বন্ধ করুন