বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > আরামবাগে গোষ্ঠীদ্বন্দে দলীয় কর্মী খুনে কড়া পদক্ষেপের ইঙ্গিত তৃণমূলের
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

আরামবাগে গোষ্ঠীদ্বন্দে দলীয় কর্মী খুনে কড়া পদক্ষেপের ইঙ্গিত তৃণমূলের

  • বৃহস্পতিবার আরামবাগের হরিণখোলা এলাকায় তৃণমূলের ২ গোষ্ঠীর সংঘর্ষে মৃত্যু হয় শেখ ইব্রাহিম (৩৫) নামে এক যুবকের।

তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে আরামবাগে দলীয় কর্মীর মৃত্যুতে কড়া পদক্ষেপের ইঙ্গিত দিল দলের জেলা নেতৃত্ব। হুগলি জেলা তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে, ওই ঘটনায় দোষীদের চিহ্নিত করে কড়া পদক্ষেপ করবে দল। গোষ্ঠীকোন্দল কোনও ভাবেই বরদাস্ত হবে না। ঘটনায় তৃণমূলকে পালটা কটাক্ষ করেছে বিজেপি। 

বৃহস্পতিবার আরামবাগের হরিণখোলা এলাকায় তৃণমূলের ২ গোষ্ঠীর সংঘর্ষে মৃত্যু হয় শেখ ইব্রাহিম (৩৫) নামে এক যুবকের। অভিযোগ, পুড়শুড়ার প্রাক্তন বিধায়ক পারভেজ রহমানির অনুগামীরা হরিণখোলা গ্রামে হামলা চালায়। এলাকা দখলের লড়াইয়ে প্রাণ যায় ইব্রাহিমের।

এই ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়ে এলাকাবাসী। তাদের দাবি, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দের জেরে গ্রামে টেকা দায় হয়েছে। দিন-রাত বোম পড়ছে। ঘটনার খবর পেয়ে হরিণখোলা ছোটেন জেলা তৃণমূল সভাপতি দিলীপ যাদব। 

পরে জেলা তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি প্রবীর ঘোষাল বলেন, কোথাও কোথাও গোষ্ঠীদ্বন্দ রয়েছে। তবে দল এসব বরদাস্ত করবে না। তদন্ত করে কড়া পদক্ষেপ করা হবে।

এই ঘটনায় তৃণমূলকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা বলে আর কিছু নেই। যত ধরপাকড় সব বিরোধীদের বেলায়। শাসকদলের কর্মীদের গায়ে হাত দেওয়ার ক্ষমতা নেই পুলিশের। তাই তারা দাঁড়িয়ে মজা দেখে। এতে দুষ্কৃতীদের সাহস আরও বেড়ে গিয়েছে। 

 

বন্ধ করুন