বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘‌আমি কাটমানি–সিন্ডিকেট থেকে সরে এসেছি’‌, নির্মল মাজির মন্তব্যে তুঙ্গে বিতর্ক
ডাঃ নির্মল মাজি। ছবি সৌজন্য : টুইটার

‘‌আমি কাটমানি–সিন্ডিকেট থেকে সরে এসেছি’‌, নির্মল মাজির মন্তব্যে তুঙ্গে বিতর্ক

  • নির্মল মাজির এই মন্তব্য নিয়েই এখন রাজ্য–রাজনীতিতে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। আগে একাধিক বিতর্কে নাম জড়িয়েছিল এই চিকিৎসক–বিধায়কের। কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান হিসেবে তাঁর নাম সবচেয়ে বেশি বিতর্কে জড়িয়েছিল। সম্প্রতি তাঁকে ওই পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। 

এবার বিতর্কিত মন্তব্য করে শাসকদল ও সরকারের অস্বস্তি বাড়ালেন চিকিৎসক–বিধায়ক নির্মল মাজি। তিনি এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সিন্ডিকেট থেকে সরে এসেছেন বলে মন্তব্য করেছেন। আর চিকিৎসকরা ছুটছেন টাকার পিছনে বলে মন্তব্য করেছেন। হাওড়ার অনুষ্ঠানে এইসব বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন নির্মল মাজি। আর তাতেই চটেছেন চিকিৎসক মহল।

ঠিক কী ঘটেছে হাওড়ায়?‌ শনিবার উলুবেড়িয়ার বিধায়ক নির্মল মাজি একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সেখানে নিজেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বচ্ছতা–সততা–দায়বদ্ধতার নিরিখে কাটমানি–কমিশন–সিন্ডিকেট থেকে সরে আসা চিকিৎসক বলে দাবি করেন। একইসঙ্গে চিকিৎসকদের টাকার পিছনে না ছুটে আরও ভালো পরিষেবা দেওয়ার পরামর্শ দেন। আর চিকিৎসক–বিধায়কের এই মন্তব্যকে অপমানজনক বলেছেন আইএমএ সহ– সভাপতির। এমনকী ওঁর সম্পত্তি কীভাবে হল তা নিয়েও প্রশ্ন তুলল ডক্টরস ফোরাম।

ঠিক কী বলেছেন নির্মল মাজি?‌ হাওড়ার লাইব্রেরির একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে নির্মল মাজি বলেন, ‘আমি নেতা–মন্ত্রী–বিধায়ক–সাংসদ নই। আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বচ্ছতা–সততা–দায়বদ্ধতার নিরিখে কাটমানি–কমিশন–সিন্ডিকেট থেকে সরে এসেছি। দীর্ঘ ৪০ বছরের বিনাপয়সার ডাক্তার আমি। আমার পরিবারে ২২ জন ডাক্তার আছে। তাঁরা পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেই ডাক্তার হয়েছেন।’‌

নির্মল মাজির এই মন্তব্য নিয়েই এখন রাজ্য–রাজনীতিতে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। আগে একাধিক বিতর্কে নাম জড়িয়েছিল এই চিকিৎসক–বিধায়কের। কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান হিসেবে তাঁর নাম সবচেয়ে বেশি বিতর্কে জড়িয়েছিল। সম্প্রতি তাঁকে ওই পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। তার পরই এমন মন্তব্য বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন