বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মালদায় দলীয় পঞ্চায়েত প্রধানকে অপসারণের দাবিতে BDO অফিসের সামনে বিক্ষোভ তৃণমূলের
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

মালদায় দলীয় পঞ্চায়েত প্রধানকে অপসারণের দাবিতে BDO অফিসের সামনে বিক্ষোভ তৃণমূলের

  • প্রধানকে অপসারণের জন্য পঞ্চায়েত সদস্যরা উপসমিতিগুলিতে অনাস্থা আনেন। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, তাঁদের না জানিয়ে সেই বৈঠক বাতিল করে দিয়েছেন কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের বিডিও সঞ্জয় ঘিসিং।

দলীয় পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ। অভিযোগ, দলকে জানিয়েও লাভ হয়নি। অবশেষে পঞ্চায়েত প্রধানকে অপসারণের দাবিতে বিডিও অফিসের সামনে বিক্ষোভে বসলেন তৃণমূলকর্মীরা। ঘটনা মালদার কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের মোথাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের। 

তৃণমূল কর্মীদের অভিযোগ, মোথাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নিলুফা ইয়াসমিন পঞ্চায়েতে কোটি কোটি টাকার দুর্নীতি করেছেন। এই নিয়ে তৃণমূল নেতৃত্বকে বারবার জানালেও পদক্ষেপ করা হয়নি। প্রধানকে অপসারণের জন্য পঞ্চায়েত সদস্যরা উপসমিতিগুলিতে অনাস্থা আনেন। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, তাঁদের না জানিয়ে  সেই বৈঠক বাতিল করে দিয়েছেন কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের বিডিও সঞ্জয় ঘিসিং। 

এর প্রতিবাদে মঙ্গলবার কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লক অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল কর্মীরা। তাঁদের দাবি, অবিলম্বে দুর্নীতিগ্রস্ত পঞ্চায়েত প্রধানকে অপসারণ করতে হবে। এই নিয়ে বিডিওর প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। 

অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন মোথাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান সইদুল শেখ। তাঁর দাবি, তৃণমূলের অপর গোষ্ঠীর লোকেরা তাঁদের বদনাম করার চেষ্টা চালাচ্ছেন। 

দুর্নীতির অভিযোগ যে মিলেছে তা স্বীকার করে নিয়েছে মালদা জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। দলের জেলা সাধারণ সম্পাদক শুভময় বসু বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। দল ওই প্রধানের কাজকর্মে নজর রাখছে। সময় মতো পদক্ষেপ করা হবে। কেউ নিজেকে দলের ওপরে ভাবলে পার পাবে না।’

ওদিকে মালদা জেলা বিজেপির সহ সভাপতি অজয় গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ‘তৃণমূলের পঞ্চায়েত, আর দুর্নীতি নেই, তা কখনও হয় না কি? আগে শুধু বিরোধীরা বলত। এখন তৃণমূলের ভিতরের লোকেরাও একই কথা বলছে। ভবিষ্যতে এরকম বিক্ষোভ আরও হবে।’

 

বন্ধ করুন