বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ২০১৫ সালের পুরভোটে জ্যোতিপ্রিয়ের নির্দেশে রিগিং? কার কথা বললেন খোদ তৃণমূল নেতা?
জ্যোতিপ্রিয়র বিরুদ্ধে সরব হলেন বনগাঁ পুরসভার মুখ্য প্রশাসক। ফাইল ছবি।
জ্যোতিপ্রিয়র বিরুদ্ধে সরব হলেন বনগাঁ পুরসভার মুখ্য প্রশাসক। ফাইল ছবি।

২০১৫ সালের পুরভোটে জ্যোতিপ্রিয়ের নির্দেশে রিগিং? কার কথা বললেন খোদ তৃণমূল নেতা?

  • ২০১৫ সালে বনগাঁর পুরভোট নিয়ে কার্যত জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের দিকে অভিযোগের ছুড়ে দিলেন তিনি।

পুরভোটের আগে রাজ্যের বিভিন্ন পুরসভায় প্রকাশ্যে আসছে তৃণমূলের কোন্দল। হাওড়া থেকে শুরু করে জঙ্গিপুর পুরসভা - তৃণমূলের নেতারা একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছেন। আর এবার একেবারে বিস্ফোরক বনগাঁর মুখ্য পুর প্রশাসক শংকর আঢ্য। ২০১৫ সালে বনগাঁর পুরভোট নিয়ে নাম না করে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের দিকে অভিযোগের ছুড়ে দিলেন তিনি। বনগাঁর এক রাজনৈতিক কর্মসূচিতে তিনি বলেন, 'আমরা হাইস্কুলে যা করেছিলাম তার জন্য মানুষের কাছে আমি ক্ষমাপ্রার্থী। জেলা সভাপতির নির্দেশে আমাদের করতে হয়েছিল।'

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে বনগাঁ পুরসভার ভোটে রিগিং করার অভিযোগ এনেছিল বিজেপি। সেই সময় বনগাঁর ২২ ওয়ার্ডে ভোটে রিগিং করা হয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল। বনগাঁর ওই কর্মসূচিতে ২০১৫ সালের পুরভোট নিয়ে ক্ষমা চান শংকর। তিনি বলেন, '২০১৫-র পুর নির্বাচনে ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী জেলা সভাপতির কাছে চোখের জল ফেলে বলেছিলেন পরাজিত হবেন। ' সেই কারণে তিনি ভুল করেছিলেন বলে তিনি দাবি করেন।

যদিও তৃণমূলের বর্তমান জেলা সভানেত্রী আলোরানি সরকার এ বিষয়টিকে ততটা গুরুত্ব দিতে নারাজ। তিনি বলেন,' ক্ষমা চাওয়া ভালো বিষয় তবে কারও বিরুদ্ধে দোষারোপ করা ঠিক নয়।' তবে সেই সময় এরকম কিছু হয়নি বলেই তিনি দাবি করেছেন। যদিও বিজেপির দাবি, যা হয়েছে মানুষ তো সবই দেখেছেন। তাই আগামিদিনে এলাকার মানুষ বনগাঁ পুরসভাকে বিজেপির হাতে তুলে দেবেন।

বন্ধ করুন