বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পার্থর আমলে কলেজে গেস্ট লেকচারার-অধ্যাপক নিয়োগেও কাটমানি, দুর্নীতির মামলা আদালতে
কলেজে গেস্ট লেকচারার ও অধ্যাপক নিয়োগের ক্ষেত্রেও দুর্নীতির অভিযোগ (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে সুনীল ঘোষ/হিন্দুস্তান টাইমস)

পার্থর আমলে কলেজে গেস্ট লেকচারার-অধ্যাপক নিয়োগেও কাটমানি, দুর্নীতির মামলা আদালতে

  • যোগ্যতা ছাড়াই কলেজে পড়ানোর চাকরি পেয়েছেন অনেকে। অভিযোগ এমনটাই। এবার এনিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের।

কলেজের অধ্যাপক, অতিথি অধ্যাপক নিয়োগ নিয়েও এবার একাধিক অনিয়মের অভিযোগ ক্রমেই সামনে আসছে। প্রকৃত যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও একাধিক প্রার্থী শুধু টাকার জোরে চাকরি পেয়েছিলেন বলে অভিযোগ উঠছে। কলকাতা হাইকোর্টেও এনিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে।

প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবীর বাড়ি থেকে কোটি কোটি টাকা উদ্ধার হয়েছে। সেই টাকার স্তুপে খামও পাওয়া গিয়েছে। অভিযোগ, সেই খামেই লেখা রয়েছে উচ্চ শিক্ষা দফতরের নাম। আসলে কলেজে নিয়োগের জন্য় ঘুরপথে টাকা দেওয়া হয়েছিল। টাকার বিনিময়েই চাকরি হয়েছিল গেস্ট লেকচারার, অধ্যাপক পদে। এবার সেই অনিয়মের অভিযোগেই মামলা দায়ের কলকাতা হাইকোর্টে। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের অঙ্গুলি হেলনে গোটা অনিয়মটি আবর্তিত হত বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ উঠেছে ১২-১৪ হাজার গেস্ট লেকচারার পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যাপক অনিয়ম হয়েছে। শুক্রবার প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে মামলার শুনানি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

মামলাকারীর দাবি, ২০২০ সালে প্যানেল প্রকাশিত হয়েছিল। তারপরই অনিয়মের বিষয়টি ক্রমশ প্রকাশ্যে আসতে শুরু করে। এনিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কাছেও চিঠি পাঠানো হয়েছে। তারপরেও অবস্থার কোনও উন্নতি হয়নি।

টেট, স্কুল সার্ভিস কমিশন সহ শিক্ষাক্ষেত্রে একের পর এক দুর্নীতির অভিযোগ সামনে আসছে। এবার কলেজের অধ্যাপক ও গেস্ট লেকচারার পদেও ভুরি ভুরি অনিয়মের অভিযোগ। আর সেই অনিয়মের ভরকেন্দ্রে উঠে আসছে সেই প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম। পাশাপাশি কলেজ সার্ভিস কমিশন ও ইন্টারভিউ বোর্ডের একাধিক সদস্যের বিরুদ্ধেও এই অনিয়মের অভিযোগ উঠছে। 

বন্ধ করুন