বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌নিশ্চয়ই এক্কেবারে তৃণমূলের প্রধানমন্ত্রী ক্যান্ডিডেট’‌, বাবুলকে খোঁচা অনুপমের
অনুপম হাজরা। 

‘‌নিশ্চয়ই এক্কেবারে তৃণমূলের প্রধানমন্ত্রী ক্যান্ডিডেট’‌, বাবুলকে খোঁচা অনুপমের

  • সন্ধ্যের সময় যখন প্রার্থী তালিকায় তাঁর নাম প্রকাশ্যে আসেনি তখন খোঁচা দেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা।

কলকাতা পুরসভার নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকায় নাম নেই বাবুল সুপ্রিয়র। থাকবে এমন কোনও কথা দলের পক্ষ থেকে কেউ দেননি। তবে তাঁকে ঘিরে জল্পনা তৈরি হয়েছিল। যে জল্পনার অবসান হয় প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পর। তবে এই জল্পনার দিকে তাকিয়ে ছিলেন বিজেপি নেতারা। বাবুলকে মেয়র পদপ্রাথী করা হয় কি না দেখার জন্য। সন্ধ্যের সময় যখন প্রার্থী তালিকায় তাঁর নাম প্রকাশ্যে আসেনি তখন খোঁচা দেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা।

বাবুল সুপ্রিয় বিজেপি ছাড়ার সময় বলেছিলেন, একটা বড় সুযোগের জন্য তিনি বিজেপি ছাড়ছেন। তাছাড়া বিজেপিতে তাঁর দমবন্ধ হয়ে আসছিল। তাই সবাই ভেবেছিলেন কলকাতা পুরসভার মেয়র পদপ্রার্থীই হল সেই ভাল এবং বড় সুযোগ। কিন্তু ঘাসফুল শিবিরের প্রকাশিত প্রার্থীতালিকায় নেই বাবুলের নাম। আর তাকে হাতিয়ার করেই বাবুলকে খোঁচা দিলেন অনুপম হাজরার।

রীতিমতো ফেসবুক পোস্ট করে বাবুলকে খোঁচা দেন অনুপম। ঠিক কী লিখেছেন তিনি?‌ ফেসবুক পোস্টে অনুপম হাজরা লেখেন, ‘‌প্লেইং ১১-এ খেলতে চাওয়া ছেলেটা আজও মাঠের বাইরে… ভাবলাম রাজ্যসভায় পাঠাবে…হল না!!! …ভাবলাম উপনির্বাচনে টিকিট দিয়ে মন্ত্রী বানাবে… টিকিট দিল না!!!…ভাবলাম কর্পোরেশন ইলেকশনে টিকিট দিয়ে মেয়র বানাবে…সেটা করল না!!! …তার মানে নিশ্চয়ই এক্কেবারে তৃণমূলের প্রধানমন্ত্রী ক্যান্ডিডেট।’‌

বাবুল সুপ্রিয়কে এই খোঁচা দিয়ে অনুপম হাজরা কার্যত তাঁকে নাজেহাল করতে চাইলেন। যদিও পাল্টা বাবুল কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি। তিনি সাংসদ পদে ইস্তফা দিয়েছেন। তাই ধরা হয়েছিল রাজ্যসভায় তাঁকে পাঠানো হবে। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে এমন কথা তাঁর হয়েছিল বলে তিনি দাবি করেননি। আবার মেয়র হবেন এমন কথা তিনি কখনও বলেননি। বিজেপি নেতারা এগুলিই ধরে নিয়েছিলেন বলে অনুপমের পোস্ট থেকে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

বন্ধ করুন